BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রসবের ১ ঘণ্টা আগেও টেস্ট কিট তৈরিতে মগ্ন, প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে নজির মহিলার

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: March 29, 2020 9:39 am|    Updated: March 29, 2020 9:44 am

The first made-in-India coronavirus testing kits reached the market

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বের পাশাপাশি ভারতেও হু হু করে বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু পরিস্থিতি মোকাবিলায় বেশ বেগ পেতে হচ্ছিল ভারতকে। ছিল না নিজস্ব কোভিড-১৯ (COVID-19) টেস্ট কিটও। তবে সেই সমস্যা এবার সমাধানের পথে। কারণ, পুণের মাইল্যাব ডিসকভারি সলিউশন প্রাইভেট লিমিটেড ও তাঁদের এক ভাইরোলজিস্টের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলস্বরূপ ভারতেই তৈরি হচ্ছে করোনা টেস্ট কিট। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু বাজারে পৌঁছে গিয়েছে এই কিট। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই পুণে, মুম্বই, দিল্লি, গোয়া ও বেঙ্গালুরুর ১৫০টি ল্যাবে পৌঁছে যাবে।

এই সফলতার পিছনে রয়েছেন পুণের ভাইরোলজিস্ট মিনাভ দাভলে। করোনা আক্রান্তের সংখ্যা যখন ক্রমশ বেড়ে চলেছে, তখনই এগিয়ে আসেন অন্তঃসত্ত্বা এই ভাইরোলজিস্ট। রাত দিন এক করে শুরু করেন টেস্ট কিট তৈরির কাজ। সন্তানের কথা ভেবে যেখানে তাঁর বিশ্রাম নেওয়ার কথা, সেখানে রাতদিন এক করে পরিশ্রম করে গিয়েছেন তিনি। পিছিয়েছেন প্রসবের দিনও। অবশেষে মিলেছে সাফল্য। অত্যন্ত অল্প সময়ের মধ্যেই তৈরি করে ফেলেছেন প্যাথো ডিটেক্ট টেস্ট কিট। মিনাভের কাজে খুশি তাঁর সংস্থা।

dr-minav

[আরও পড়ুন: লকডাউন ভেঙে হাজার হাজার শ্রমিকের ভিড়, বিপদঘণ্টা বাজাচ্ছে দিল্লির এই ছবি]

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত সপ্তাহে ১ লক্ষ কিট তৈরি করা যাবে। পরবর্তীতে প্রয়োজনে তা বাড়িয়ে সপ্তাহে ২ লক্ষ পর্যন্ত করা যায়। প্রত্যেকটি কিট দিয়ে ১০০টি নমুনা পরীক্ষা করা যায়। খরচ পড়বে ১২০০ টাকা। যেখানে করোনা পরীক্ষায় বিদেশ থেকে আনা প্রতিটি কিটের দাম ৪৫০০ টাকা। প্রসঙ্গত, করোনার জেরে গোটা বিশ্বে ত্রাহি ত্রাহি রব। কঠিন পরিস্থিতি বলছেন চিকিৎসক, বিশেষজ্ঞরা। দুনিয়ায় লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যা। এখনই দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ১০০০ ছুঁয়েছে। খুব কম সময়ের মধ্যে এই হার বৃদ্ধি। দেশে নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের (তিন বিদেশি-সহ সংখ্যাটা ২৫)। মহারাষ্ট্রে মৃত্যুর হার সর্বোচ্চ। আক্রান্তের সংখ্যাও দেশের মধ্যে সর্বাধিক মহারাষ্ট্রে। বাংলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৮। মৃত্যু হয়েছে একজনের। বিশ্বজুড়ে ছয় লক্ষেরও বেশি মানুষের শরীরে থাবা বসিয়েছে COVID-19।

[আরও পড়ুন: ‘খাবার না পেলে গোটা পরিবার নিয়ে আত্মহত্যা করব’, ফোন পেয়েই উদ্ধারে ছুটল পুলিশ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে