Advertisement
Advertisement
Charanjit Singh Channi

‘মোদির নিরাপত্তায় গলদ ছিল না, কৃষকদের উপর লাঠি চালাতে পারব না’, সাফাই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর

জনসভায় লোক না হওয়ায় নাটক করছেন মোদি, তোপ কংগ্রেসের।

There was no security lapse for PM Modi, stressed Punjab Chief Minister Charanjit Singh Channi | Sangbad Pratidin
Published by: Subhajit Mandal
  • Posted:January 5, 2022 7:43 pm
  • Updated:January 5, 2022 7:59 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নিরাপত্তায় কোনও গলদ ছিল না। শেষ মুহূর্তে সফরের রুট বদল করেন মোদি। তা সত্ত্বেও যথেষ্ট নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করেছিল পাঞ্জাব সরকার। বিজেপির বাক্যবাণের মধ্যে সাংবাদিক বৈঠক করে সাফাই দিলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি (Charanjit Singh Channi)। এখানেই শেষ নয়, পাঞ্জাব কংগ্রেসের সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে দাবি করা হল, ফিরোজপুরের সভায় লোক না হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) ‘নাটক’ করছেন।

[আরও পড়ুন: দায়িত্ব নিতে না পারলে পদ ছাড়ুন, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার প্রশ্নে চান্নিকে তোপ অমরিন্দরের]

এদিন বিজেপি (BJP) নেতাদের যাবতীয় অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চান্নি। তাঁর বক্তব্য, “কোনও নিরাপত্তার গলদ হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর উপর আক্রমণ হওয়ার মতো কোনও পরিস্থিতি তৈরি হয়নি, প্রধানমন্ত্রীর সুরক্ষা নিয়েও প্রশ্ন ওঠেনি। প্রধানমন্ত্রীর কনভয় বিক্ষোভস্থলের অনেক আগেই আটকে দেওয়া হয়েছিল। যে কোনও বিক্ষোভ তুলতেই ১০-২০ মিনিট সময় লাগে। কৃষকরা গত ১ বছর ধরে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। ওদের উপর আমি লাঠি চালাতে পারব না।”

পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর সাফাই, “হেলিকপ্টারে যাওয়ার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রীর। হঠাৎ তাঁর সফরসূচি বদলে যায়, মোদি সড়কপথে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তা সত্ত্বেও পাঞ্জাব সরকার তার নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছিল। হঠাৎ বিক্ষোভকারীরা এসে রাস্তায় বসে পড়েন। কেউ বিক্ষোভ দেখাতেই পারেন গণতান্ত্রিক দেশে। প্রধানমন্ত্রীকে বিক্ষোভের কথা জানানোও হয়েছিল, অন্য রাস্তা দিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।” চান্নি জানিয়েছেন, মোদির নিরাপত্তায় যেহেতু কোনও খামতি হয়নি, তাই কোনও আধিকারিককে বরখাস্ত করা হয়নি। তবে, কেন্দ্র সরকার চাইলে পাঞ্জাব সরকার যে কোনওরকম তদন্তে রাজি আছে। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর সফর বাতিল করার সিদ্ধান্তে দুঃখপ্রকাশ করে বলেন, “নিরাপত্তার কোনও গলদ না থাকা সত্বেও প্রধানমন্ত্রীকে ফিরে যেতে হয়েছে। তাই আমরা দুঃখিত। এতে দয়া করে রাজনীতি করবেন না, আমরাও প্রধানমন্ত্রীকে সম্মান করি।”

[আরও পড়ুন: PM Modi in Punjab: ‘মুখ্যমন্ত্রীকে বলে দেবেন আমি বেঁচে ফিরেছি’, ভাতিণ্ডা বিমানবন্দরের কর্মীদের বললেন ‘ক্ষুব্ধ’ মোদি]

চান্নির সরকারি সাংবাদিক বৈঠকে সুর অনেকটা নরম থাকলেও পাঞ্জাব কংগ্রেসের (Punjab Congress) অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একের পর এক বিস্ফোরক টুইট এদিন করা হয়। কংগ্রেসের দাবি ফিরোজপুরের জনসভায় লোক জড়ো না হওয়ায় এই ধরনের নাটক করছেন মোদি। টুইটে তাঁদের দাবি,”মানুষ যদি আপনার সভায় না আসে, তাহলে আমাদের দোষ দেবেন না। নিরাপত্তার বন্দোবস্ত পুরোপুরি ঠিক ছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী মাঝপথে হুসেনিওয়ালা যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। এটা প্রথম সফরসূচিতে ছিল না। দয়া করে এভাবে ঘটনার অপব্যাখ্যা করবেন না। যতদিন না পাঞ্জাববাসীর প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন, ততদিন পাঞ্জাববাসী আপনাদের সভায় আসবে না। এটা মনে রাখবেন। “

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ