BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‌‘‌দেশবাসীর কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে,’ নাম না করে মোদি সরকারকে কটাক্ষ সোনিয়ার

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 29, 2020 8:31 pm|    Updated: August 29, 2020 8:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ফের সোনিয়া গান্ধীর (Sonia Gandhi) নিশানায় মোদি সরকার। দেশে ছড়ানো হচ্ছে হিংসা। খর্ব করা হচ্ছে বাক স্বাধীনতা। শনিবার একটি ভিডিও বার্তায় এভাবে নাম না করে কেন্দ্রের প্রতি ক্ষোভ উগড়ে দিলেন কংগ্রেসের অন্তবর্তী সভানেত্রী।

[আরও পড়ুন: এবার কংগ্রেসের নিশানায় হোয়াটসঅ্যাপ! বিজেপির সঙ্গে আঁতাঁতের অভিযোগে সরব রাহুল]

এদিন একটি ভিডিও বার্তায় মোদি সরকারের নাম না করেই সোনিয়া বলেন, ‘‌‘বিভাজনকামী শক্তি দেশে হিংসা ছড়াচ্ছে। তাঁরা চাইছে মানু্ষ একে-অপরের সঙ্গে লড়াই করুক। বর্তমান পরিস্থিতিতে আদিবাসী, যুবক, মহিলা, কৃষক-দেশের প্রত্যেকটি মানুষের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে। ওঁদের লক্ষ্যই হল, মানুষের বাক স্বাধীনতা হরণ করা। মহাত্মা গান্ধী (Mahatma Gandhi), জওহরলাল নেহরু (Jawaharlal Nehru) কিংবা বিআ আম্বেদকর (BR Ambedkar)–আমাদের পূর্বসূরীদের মধ্যে কেউই হয়তো ভাবতে পারেননি, স্বাধীনতার ৭৫ বছর পর দেশ এরকম ভয়ংকর পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাবে। যেখানে আমাদের সংবিধান এবং গণতন্ত্র ভয়ংকর ক্ষতির মুখে দাঁড়িয়ে।‌’‌’ এখানেই শেষ নয়, এরপর তিনি নাম না করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, দেশের গণতন্ত্রের উপর স্বৈরতন্ত্র চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তাঁর কথায়, ‘‌‘‌খারাপ ভাবনাচিন্তাই এখন সমাজকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করছে। বাক স্বাধীনতা হরণ করা হচ্ছে। গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করা হচ্ছে।’‌’‌

[আরও পড়ুন: শারীরিক অবস্থার উন্নতি, শীঘ্রই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেতে চলেছেন অমিত শাহ]

এই প্রথম নয়, গত কয়েকদিন ধরেই বিজেপিকে সরকারকে লাগাতার আক্রমণ করে চলেছেন সোনিয়া এবং তাঁর পুত্র তথা কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। এছাড়া ফের একবার রাজ্যগুলির জিএসটি বাবদ কেন্দ্রের কাছ থেকে প্রাপ্য টাকার জন্য সরব হওয়া হোক কিংবা NEET–JEE স্থগিতের জন্য পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ানো– প্রত্যেক ক্ষেত্রেই কেন্দ্রকে বিঁধেছেন সোনিয়া–রাহুল। তাতেই সর্বশেষ সংযুক্তি এদিনের মন্তব্য। ‌যদিও বিজেপির তরফ থেকে কোনও শীর্ষনেতা এখনও এই প্রসঙ্গে পালটা মন্তব্য করেননি।

[আরও পড়ুন: ‌‘‌তিন বছরে অর্থনীতির হাল খারাপ কেন?‌’‌ নির্মলাকে ‘ঈশ্বরের দূত’ নাম দিয়ে প্রশ্ন চিদম্বরমের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement