BREAKING NEWS

১২ ফাল্গুন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অসমে NRC’তে নাম না থাকলেও থাকছে ভোটাধিকার, নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তে খুশি কংগ্রেস, AIUDF

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: January 22, 2021 7:43 pm|    Updated: January 22, 2021 7:43 pm

An Images

ছবি প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অসমে (Assam) NRC বা জাতীয় নাগরিক পঞ্জির খসড়া তালিকায় নাম না থাকলেও আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে ভোট দেওয়া যাবে। এমনটাই জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। অর্থাৎ খসড়া তালিকায় নাম না-থাকলেও এখনই ভোটাধিকার হারাচ্ছেন না কেউ। নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তে অনেকটাই স্বস্তি পেলেন NRC’তে নাম না থাকা বাসিন্দারা।

তবে, চূড়ান্ত নাগরিক পঞ্জির ভিত্তিতে জানুয়ারি মাসে সংশোধিত ভোটার তালিকা প্রকাশ করবে কমিশন। তখন সেই তালিকায় যাঁদের নাম থাকবে না, তাঁরা নাগরিকত্ব হারাবেন। চলে যাবে ভোটাধিকারও। ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশনের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে কংগ্রেস এবং AIUDF । অন্যদিকে, সে রাজ্যের শাসক বিজেপির বক্তব্য, নাগরিকপঞ্জিতে নাম নেই, এমন ভোটারদের ভোটদানের প্রক্রিয়ায় যেন স্থিতাবস্থা বজায় থাকে।

[আরও পড়ুন: সোশ্যাল মিডিয়ায় সরকারের সমালোচনা ‘শাস্তিযোগ্য অপরাধ’! বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নীতীশ প্রশাসনের]

বাংলার পাশাপাশি অসমেও সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। ফলে উত্তপ্ত সে রাজ্যের রাজনীতি। গত বছর ৩১ আগস্ট সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে প্রকাশিত হয়েছিল এনআরসির খসড়া তালিকা। ৩.২৯ কোটি আবেদনকারীর মধ্যে নাম বাদ পড়েছিল ১৯ লক্ষেরও বেশি মানুষের। তবে নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিয়েছে, যাঁদের নাম বাদ পড়েছে, তাঁদেরও ভোটাধিকার থাকবে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, যেহেতু এটি চূড়ান্ত নাগরিক পঞ্জি নয়, তাই আপাতত বাদ পড়া প্রত্যেকেই ভোট দিতে পারবেন।

[আরও পড়ুন: অবৈধভাবে কয়লা তুলতে গিয়ে বিপত্তি, মেঘালয়ে মৃত ৬ পরিযায়ী শ্রমিক]

নির্বাচন কমিশনের এই বক্তব্যের পরই কংগ্রেস এবং এআইইউডিএফের (AIUDF) পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানানো হয়েছে। অন্যদিকে, অসম বিজেপির ইউনিট প্রেসিডেন্ট রঞ্জিত দাস বলেন, “কয়েক লক্ষ ভারতীয়র নাম এনআরসি তালিকা থেকে বাদ পড়েছে। আবার অনেক অনুপ্রবেশকারীর নামও ওই তালিকায় ঢুকেছে। বর্তমান এই এনআরসির তালিকা বিজেপি মেনে নেয়নি, তাই পুনরায় সমস্ত তথ্য যাচাইয়ের আবেদন করা হয়েছে। সেটি না হওয়া পর্যন্ত ওই ভোটারদের ভোট দানের প্রক্রিয়ায় স্থিতাবস্থা থাকা প্রয়োজন।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement