BREAKING NEWS

৮ চৈত্র  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ২৩ মার্চ ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

মুসলিমদের উচিত ওঁকে দেখামাত্র মারা, পয়গম্বর বিতর্কে বিজেপি বিধায়ককে নিশানা কংগ্রেস নেতার

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: August 24, 2022 5:55 pm|    Updated: August 24, 2022 9:01 pm

Thrash BJP leader T Raja Singh wherever you find him, Telangana Congress leader appeal to Muslims | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পয়গম্বরকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে গতকাল গ্রেপ্তার হন তেলেঙ্গানার (Telangana) বিজেপি (BJP) বিধায়ক টি রাজা সিং (T Raja Singh)। পাশাপাশি দল সাসপেন্ড করেছে নেতাকে। গোটা ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে রাজধানী হায়দরাবাদ-সহ (Hyderabad) গোটা রাজ্যে। এই অবস্থায় উত্তেজনা প্রশমনের বদলে তা বাড়ালেন রাজ্যের কংগ্রেস (Congress) নেতা ফিরোজ খান (Firoj Khan)। বুধবার একটি বিক্ষোভ সমাবেশে মুসলিমদের উদ্দেশে তাঁর পরামর্শ, আইন হাতে তুলে নিন, টি রাজাকে দেখামাত্র মারধর করুন। এইসঙ্গে দাবি করেন, পয়গম্বরের অবমাননা করায় বিজেপি নেতাকে ক্ষমা চাইতে হবে।

পয়গম্বরকে অবমাননার প্রতিবাদে হায়দরাবাদে একটি বিক্ষোভ সমাবেশের ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানেই বিতর্কিত মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছে কংগ্রেস নেতাকে। তিনি বলেন, “টি রাজা সিং বিভাজনের রাজনীতি করতে চাইছে। ওকে জেলে পাঠান। রাজাকে তাঁর মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে। পয়গম্বর মুসলিম সম্প্রদায়ের ‘হিরো’। উনি যদি ক্ষমা না চান, সেক্ষেত্রে হায়দরাবাদের মুসলিমদের বলব, ওঁকে দেখামাত্র মারধর করুন। বর্তমান পরিস্থিতিতে একবার নয়, একাধিকবার নিজের হাতে আইন তুলে নিতে পারি আমরা।”

[আরও পড়ুন: হঠাৎ উধাও কংগ্রেসের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল! অন্তর্ঘাত না অন্য সমস্যা? তদন্তে দল]

বিজেপির প্রাক্তন মুখপাত্র নূপুর শর্মার (Nupur Sharma) বক্তব্যকে সমর্থন করে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছিলেন তেলেঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক টি রাজা সিং। সেই ভিডিও ঘিরেই উত্তেজনা তৈরি হয়। গতকাল পুলিশের নানা দপ্তর ঘিরে বিক্ষোভ দেখান মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা। তাঁদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করা হয়েছে, রাজার বিরুদ্ধে এহেন অভিযোগ আনা হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই রাজাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

[আরও পড়ুন: সমস্যা মেটানোর নামে তরুণীকে ৭ বছর ধরে ধর্ষণ! গ্রেপ্তার স্বঘোষিত ধর্মগুরু ও তাঁর স্ত্রী]

যদিও রাজা জানিয়েছেন, স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান মুনাওয়ার ফারুকিকে কটাক্ষ করেই ভিডিওটি তৈরি করেছিলেন তিনি। অন্য কাউকে আঘাত করার উদ্দেশ্য ছিল না তাঁর। তিনি বলেছেন, “আমি বুঝতে পারছি না কীসের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযোগ দায়ের করেছে। কোনও সম্প্রদায়ের নাম উল্লেখ করে আমি ভিডিও বানাইনি। শুধুমাত্র ফারুকিকে কটাক্ষ করা হয়েছিল। আমি কারও ভাবাবেগে আঘাত করিনি। তাছাড়াও এই ভিডিওটির দু’টি ভাগ রয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই দ্বিতীয় ভাগ প্রকাশ করার পরিকল্পনা ছিল।” উল্লেখ্য, গ্রেপ্তার করার পরে পরেই জামিন পেয়ে যান বিজেপি নেতা। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে