২২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ৫ জুন ২০২০ 

Advertisement

একটানা গুলির লড়াইয়ে সাফল্য, সুকমায় খতম ৩ মাওবাদী

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 15, 2019 9:22 am|    Updated: September 15, 2019 9:22 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাওবিরোধী অভিযানে নেমে ফের বড়সড় সাফল্য পেল ছত্তিশগড় পুলিশ। শনিবার সন্ধেয় আরও তিন মাওবাদীকে খতম করা হল। এই নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় নিকেশ হল মোট পাঁচজন মাওবাদী। বরাবরের মাওবাদী প্রবণ এলাকার নিরাপত্তা আঁটসাঁট করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: সংসদীয় কমিটিতে বড়সড় রদবদল, স্থান পেলেন বাংলার ৯ বিজেপি সাংসদ]

শনিবার সন্ধে ছ’টা নাগাদ চিন্তলনার থানার তাড়মেটলা-মুকরম নুল্লার কাছে জঙ্গলে হানা দেয় ছত্তিশগড় পুলিশ। তার আঁচ পেয়ে যায় মাওবাদীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে পা রাখামাত্রই শুরু হয় হামলা। বেশ কিছুক্ষণ ধরে দু’পক্ষের মধ্যে চলে অবিরাম গুলির লড়াই। মাওবাদী দমন শাখার ডেপুটি ইনস্পেক্টর জেনারেল সুন্দররাজ পি বলেন, “গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জেলা পুলিশের রিজার্ভ গার্ড এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালায়। ঠিক সেই সময় মাওবাদীরা তাদের উপর হামলা করে। দু’পক্ষের সংঘর্ষ বেঁধে যায়। তাতেই একে একে তিনজন মাওবাদী নিকেশ হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বেশ কয়েকটি আগ্নেয়াস্ত্র বাজেয়াপ্ত করেছে।”

এর ঠিক আগে শুক্রবার রাতে মাওবাদী-পুলিশের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দান্তেওয়াড়া। বেশ কিছুক্ষণের অবিরাম গুলির লড়াইয়ে খতম হয় দুই মাওবাদী। তাদের দীর্ঘদিন ধরে খুঁজছিল পুলিশ। দান্তেওয়াড়ার পুলিশ সুপার অভিষেক পল্লব বলেন,”শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ দান্তেওয়াড়ার কুতরেম গ্রামের জঙ্গলে ঘাপটি মেরে বসেছিল মাওবাদীরা। দু’পক্ষের ব্যাপক গুলির লড়াই চলে। পরে জঙ্গলের মধ্যে থেকে লাচু মান্দাভি ও পোদিয়া নামে দুই মাওবাদীর দেহ উদ্ধার হয়। এরা মালাঙ্গির অঞ্চল কমিটির সদস্য। দু’জনের মাথার দাম ছিল ৫ লক্ষ টাকা।” ঘটনাস্থল থেকে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: প্রাণ কাড়ল ‘নাগিন ডান্স’! গণেশ বিসর্জনে নাচতে গিয়ে মৃত্যু ব্যক্তির]

আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর দান্তেওয়াড়া বিধানসভার একটিমাত্র আসনে উপনির্বাচন। তার আগে মাওবাদী কার্যকলাপে উদ্বিগ্ন প্রশাসনিক কর্তাব্যক্তিরা। তবে ২৪ ঘণ্টায় মোট পাঁচজন মাওবাদী নিকেশ হওয়ার ঘটনায় কিছুটা হলেও স্বস্তিতে পুলিশ। তবে মাওবাদীদের হাতে কীভাবে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র আসছে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement