৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে নির্মলাকে অঙ্কের ‘পাঠ’ মহুয়ার! বাতলে দিলেন গরিবদের সাহায্যের উপায়

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 18, 2020 5:03 pm|    Updated: April 19, 2020 3:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের মেয়াদ ১৯ দিন বেড়েছে। কিন্তু কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজের পরিমাণ বাড়েনি। শুরুতে যে ১ লক্ষ ৭০ হাজার কোটির প্যাকেজ অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ (Nirmala Sitharaman) ঘোষণা করেছিলেন, তাতেই কাজ চালাতে হচ্ছে আম আদমিকে। আসলে সরকার রাজকোষের উপর অতিরিক্ত বোঝা চাপাতে চাইছে না। তাই লকডাউন বাড়লেও আর্থিক প্যাকেজ বাড়ানো হয়নি। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে টুইটারে সরব হয়েছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র (Mahua Moitra)। অর্থমন্ত্রীকে অঙ্ক করে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন, সরাসরি রাজকোষ থেকে কোনও টাকা না তুলেও দেশের অন্তত ৫ কোটি পরিবারকে যথেষ্ট পরিমাণ সাহায্য করা যেত। 

[আরও পড়ুন: বাড়িটাই যেন ‘কন্ট্রোল রুম’, বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায্যার্থে নিরলস অধীর চৌধুরি]

প্রধানমন্ত্রী যেদিন লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করলেন, তার দিন দুই বাদেই একটি টুইট করেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ। যাতে হিসেব দেওয়া ছিল এই পরিস্থিতিতে কীভাবে আর্থিক সংকটের মোকাবিলা করা যাবে, তাও সরাসরি রাজকোষে হাত না দিয়ে। মহুয়া বলছেন,”অর্থমন্ত্রীর জন্য দ্রুত অঙ্কের পাঠ। ESI বাবদ ৭৫ হাজার কোটি, দাবিহীন প্রভিডেন্ট ফান্ড থেকে ৪০ হাজার কোটি, এবং নির্মাণ ক্ষেত্রে যে সেস সরকার তোলে সেই ৩৫ হাজার কোটি টাকা দিয়ে খুব সহজে দেশের সবচেয়ে গরিব ৫ কোটি পরিবারকে অন্তত সাড়ে সাত হাজার টাকা করে সাহায্য করা যেত। এর ফলে আগামী ৩ মাস অন্তত ২৫ কোটি মানুষ ভাল থাকত। মহুয়ার এই প্রস্তাবের সঙ্গে অবশ্য দলেরই অন্য সাংসদরা একমত নন। কৃষ্ণনগরের সাংসদ যেভাবে সাধারণের টাকা সরকারকে ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছেন, তা বাস্তবসম্মত নয় বলে মনে করছেন তাঁরা।   

 

[আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র সরকারি কর্মীদের বেতনে কাটছাঁট, বাতিল মহার্ঘ্য ভাতা বৃদ্ধিও]

তৃণমূল সাংসদের এই প্রস্তাবকে সমর্থন করেছেন কংগ্রেস সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শশী থারুরও (Shashi Tharoor)। তিনি মহুয়ার পোস্টটি রিটুইট করেন। এবং তৃণমূল সাংসদকে ট্যাগ করে বলেন,”গরিবদের হাতে বেঁচে থাকার মতো টাকা তুলে দেওয়ার জন্য আমার সহকর্মী মহুয়া যে প্রস্তাব দিয়েছে, তা বেশ আকর্ষণীয়। আমার বিশ্বাস নির্মলা সীতারমণ এই প্রস্তাবটি ভেবে দেখবেন।” মহুয়ার সেই অঙ্ক শিক্ষার টুইটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। তবে, সরকার এই প্রস্তাবে আদৌ আমল দেবে কিনা, সেটা স্পষ্ট নয়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement