BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিদ্যুতে রাশ টানতে চক্রধরপুরেও গ্রিন স্টেশন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 21, 2016 11:49 am|    Updated: June 21, 2016 3:59 pm

To Save Electricity, Chakradharpur Has Become A Green Station

নব্যেন্দু হাজরা: বিদ্যুতের খরচে লাগাম টানতে রেলমন্ত্রক অনেকদিন ধরেই বলে আসছিল গ্রিন স্টেশনের সংখ্যা বাড়ানোর কথা৷ সেই কথা মাথায় রেখেই দক্ষিণ-পূর্ব রেল বাড়াতে চলেছে গ্রিন স্টেশন৷ খরচের খাতে একটু লাগাম দিতেই এই পরিকল্পনা বলে জানিয়েছেন আধিকারিকরা৷ ইতিমধ্যেই দক্ষিণ-পূর্ব রেলের জয়চণ্ডীপাহাড়ে একটি গ্রিন স্টেশন রয়েছে৷ জুলাই মাস থেকেই চক্রধরপুরে আরও একটি গ্রিন স্টেশন চালু হচ্ছে৷ সোলার প্যানেল, এলইডি দিয়ে সুসজ্জিত এই স্টেশনের উপর দিয়ে হাওড়া-মুম্বইগামী সব ট্রেন যায়৷ রেলসূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় ৪৫ লক্ষ টাকা খরচ করে তৈরি হয়েছে এই সবুজ স্টেশন৷ ঝাড়খণ্ডে এটিই প্রথম গ্রিন স্টেশন৷ অধিকাংশ কাজই সম্পূর্ণ৷ এবার এই নতুন স্টেশন চালু এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা৷
রেলসূত্রে জানা গিয়েছে, রাঁচি বেসড্ একটি বেসরকারি সংস্থাকে দিয়ে এই স্টেশন তৈরির কাজ করা হয়েছে৷ স্টেশনে আধিকারিকদের বিভিন্ন দফতর, যাত্রী প্রতীক্ষালয়, শৌচালয়–সহ যাবতীয় জায়গা সাজছে সোলার আলোয়৷ চক্রধরপুর স্টেশনের ইলেকট্রিক্যাল অফিসাররা সোলার আলো এবং এলইডি দিয়ে স্টেশন সাজাতে সাহায্য করেছেন৷ এক আধিকারিক জানিয়েছেন, এই সোলার আলো দিয়ে সাজানোর ফলে স্টেশনটিকে দেখতেও ভাল লাগবে৷ আলো, পাখা সবই চলবে সোলার প্যানেলের মাধ্যমে৷ যদিও স্টেট ইলেকট্রিসিটি বোর্ডও বিকল্প মাধ্যম হিসাবে থাকবে৷ ১২ থেকে ১৫ ঘণ্টা এই সোলার প্যানেলের মাধ্যমে স্টেশন চত্বর আলোকিত হবে৷
বর্তমানে ঝাড়খণ্ড উড়জা বিকাশ নিগম লিমিটেড থেকে আলো নেওয়া হয় স্টেশন আলো করার জন্য৷ রেলের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী বছর ঝাড়সুগুদা রেলস্টেশনকে গ্রিন স্টেশন করা হবে৷ মাস ছয়েকের প্রচেষ্টায় চক্রধরপুর স্টেশনটিকে গ্রিন স্টেশন করা হল৷ ভবিষ্যতে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের এই ধরনের স্টেশনের সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে৷ পূর্ব রেলের তরফে গ্রিন স্টেশন তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে৷
২০১১ সালে জম্মু-উধমপুর রুটে মানওয়াল স্টেশন প্রথম গ্রিন স্টেশন হিসাবে তৈরি হয়৷ তারপর প্রতি জোনেই বেশ কিছু স্টেশন গ্রিন স্টেশন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ তবে মাঝে এই পরিকল্পনা কিছুটা ধাক্কা খায়৷ কিন্তু শেষ বাজেট পেশের সময় রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু প্রতি জোনকেই গ্রিন স্টেশন তৈরির উপর জোর দিতে বলেন৷ কারণ দিনে দিনে বিদ্যুতের খরচ বেড়েই চলেছে৷ সেই খরচে টান দিতেই রেলমন্ত্রকের এই পরিকল্পনা৷ বছর বছর খরচ বাড়লেও রেলের আয় বিশেষ বাড়েনি৷ তাই খরচের খাতে লাগাম টেনেই কোষাগারের হাল ফেরাতে চাইছেন রেলমন্ত্রকের কর্তারা৷ গ্রিন স্টেশনের সংখ্যাবৃ‌দ্ধি খরচ হ্রাসের একটা দিক৷ ইতিমধ্যেই এই খাতে রেলমন্ত্রক অর্থ বরাদ্দও করেছে৷ প্রতি জোনেই এখন তাই গ্রিন স্টেশন বাড়ানোর পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে