৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সুপ্রিম বিচারপতিদের বিক্ষোভ মেটাতে প্রতিনিধি দল, সিদ্ধান্ত বার কাউন্সিলের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 13, 2018 1:06 pm|    Updated: January 13, 2018 1:06 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিক্ষুব্ধ বিচারপতিদের ক্ষোভ মেটাতে এবার সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল গড়ার সিদ্ধান্ত নিল বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া। তাঁরাই চার বিক্ষুব্ধ বিচারপতির সঙ্গে দেখা করবেন। তাঁদের অভাব-অভিযোগ নিয়ে কথা বলে সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করবেন। বাকি বিচারপতিদের সঙ্গেও কথা বলা হবে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই সমস্যা মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা করা হবে বলেই জানানো হয়েছে।

 ঠিকানার প্রমাণপত্র হিসাবে আর বৈধ নয় পাসপোর্ট ]

দেশের মানুষের সর্বোচ্চ ভরসার স্থল সুপ্রিম কোর্ট। সেখানেই বিদ্রোহের আভাস। স্বাধীনতাত্তোর ভারতে যা প্রথম ও বেনজির। প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে মুখ খোলেন চার বিচারপতি। অভিযোগ, তাঁদের ঠিকঠাক করে কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে না।  কিছু কিছু মামলা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিশেষ বেঞ্চের কাছে পাঠানো হচ্ছে। এ নিয়ে তাঁরা প্রধান বিচারপতিকে চিঠিও দিয়েছিলেন। যদিও তাতে সমস্যার সুরাহা হয়নি। তারপরই গণতন্ত্রের স্বার্থে তাঁরা সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খোলার সিদ্ধান্ত নেন।

শুক্রবারের এই ঘটনা রীতিমতো চলিয়ে দেয় দেশবাসীকে। দেশের বিচারব্যবস্থার স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যাওয়ার পক্ষে এ ঘটনা যথেষ্টও। এবং তা হয়েওছে। রাহুল গান্ধীর মতো বিরোধীরা এই ইস্যুকে ছেড়ে দেয়নি। বরং যে বিচারপতি লোয়ার মৃত্যু মামলা নিয়ে এইটানাপোড়েন সেখানে জড়িয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের নাম। তাই তা বিচারপতি অরুণ মিশ্রের বেঞ্চে পাঠিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। তাতে জমি পেয়ে যান রাহুল গান্ধী। কিন্তু দেশের বিচারব্যবস্থাই যখন সন্দেহের মুখে পড়ে, তখন গণতন্ত্রই যে প্রশ্নের মুখে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

জট কাটাতে আজই বৈঠকে বসেন বার কাউন্সিলের সদস্যরা। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল তৈরি করা হবে। তাঁরাই পুরো বিষয়টির শীঘ্র নিষ্পত্তি করবেন। গতকালই সরকারের পক্ষে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না। বিচারব্যবস্থার নিজস্ব সমস্যায় নাক গলাবে না। সে সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান মনন কুমার মিশ্র। রাহুল গান্ধী-সহ যে বিরোধীরা এ ব্যাপারে সরব হয়েছেন তাঁদের কাছে এ নিয়ে রাজনীতি না করার আরজি জানানো হয়েছে। বার কাউন্সিলের দাবি, এ নিয়ে আর কোনও বিতর্কের দরকার নেই। যে সমস্যা তৈরি হয়েছে তা নিজেদের মধ্যে মিটিয়ে নেওয়া হবে। কোনওভাবেই যাতে এই সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠানের সম্মানহানি না হয়, সে ব্যাপারে খেয়াল রাখা হয়েছে।

[ সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে বেনজির বিদ্রোহ ৪ বিচারপতির ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement