২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৯ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

চিন সীমান্তে সেনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা! নিরাপত্তা খতিয়ে দেখে ঘোষণা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 21, 2020 3:53 pm|    Updated: June 21, 2020 3:53 pm

Top military brass told to ensure strict vigil on Chinese activities

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পূর্ব লাদাখে উত্তেজনার মধ্যেই ফের দিল্লিতে তিন বাহিনীর প্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। সেনাপ্রধান এমএম নারাভানে (Manoj Mukund Naravane), বায়ুসেনা প্রধান আর কে এস ভাদুরিয়া (RKS Bhadauria) এবং নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল কর্মবীর সিংয়ের (Admiral Karambir Singh) পাশাপাশি এই বৈঠকে সেনা সর্বাধিনায়ক বিপিন রাওয়াতও (Bipin Rawat) উপস্থিত ছিলেন। রাশিয়া সফরের একদিন আগে চিন সীমান্তের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতেই এই বৈঠক ডাকেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। 

সংবাদসংসস্থা পিটিআই সূত্রের খবর, এই বৈঠকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী তিন সেনার প্রধানকেই চিন সীমান্তে আরও ‘কড়া নজরদারি’ চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন। পূর্ব লাদাখের গালওয়ান, ১৪ নং পেট্রলিং পয়েন্ট, এবং প্যাঙ্গগংয়ের দিকে স্থলসেনাকে বিশেষ নজর রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আকাশপথে চিনা বায়ুসেনার কার্যকলাপের উপর কড়া নজর রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বায়ুসেনাকে। কোনওভাবে চিন ভারতীয় আকাশসীমা লঙ্ঘন করার চেষ্টা করলেই উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নৌবাহিনীকেও। ভারতের জলসীমার সুরক্ষা অটুট রাখতে সবরকম পদক্ষেপ করার স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে তাঁদেরও। সংবাদসংসস্থা পিটিআই সূত্রের দাবি, তিন সেনাকেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, সীমান্তরক্ষার দায়িত্বে থাকা কম্যান্ডারদের সমস্তরকম পদক্ষেপ করার স্বাধীনতা দিতে। সূত্রের খবর, ভারতের সীমান্তরক্ষার স্বার্থে সেনা যে কোনও পদক্ষেপ করতে প্রস্তুত বলে প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে জানিয়ে দিয়েছেন তিন বাহিনীর প্রধানরাও।

[আরও পড়ুন: চিনের সামনে আত্মসমর্পণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী! নাম বিকৃত করে মোদিকে আক্রমণ রাহুলের]

উল্লেখ্য, গত ১৫ জুন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনা ফৌজের হামলায় ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হওয়ার পর থেকেই দিল্লিতে শুরু হয়েছে জোর তৎপরতা। এর আগেও তিন সেনার প্রধান এবং সেনা সর্বাধিনায়কের সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। একাধিকবার আলোচনা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও। আসলে কেন্দ্র চাইছে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তিন বাহিনীকে প্রস্তুত রাখতে। রবিবারের বৈঠকেও প্রতিরক্ষামন্ত্রী সেনাপ্রধানদের জানিয়ে দিয়েছেন, প্রয়োজনে ভারতকে ‘অন্যরকম’ পদক্ষেপ করতে হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে