BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কুণালের জন্য দরজা খুলল ভিস্তারা, আপত্তি নেই আরও এক বিমান সংস্থার

Published by: Bishakha Pal |    Posted: January 29, 2020 5:04 pm|    Updated: January 30, 2020 12:53 pm

Two airliners open door for comedian Kunal Kamra

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরপর চারটি বিমান সংস্থা কুণাল কামরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও দু’টি বিমান সংস্থা তাঁর জন্য দরজা খুলে দিল। সরকারি নির্দেশ কার্যত অমান্য করে ভিস্তারাএয়ার এশিয়ার তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বিষয়টি নিয়ে তাঁরা পর্যালোচনা করছেন। তার আগে কুণাল কামরা তাঁদের বিমানে যাতায়াত করতে পারেন।

অর্ণব গোস্বামীকে কুমন্তব্যের জেরে দেশের চারটি বিমান সংস্থা কুণাল কামরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তার মধ্যে রয়েছে এয়ার ইন্ডিয়া, ইন্ডিগো, স্পাইসজেট ও গো এয়ার। দেশের সমস্ত বিমান সংস্থাকে কুণাল কামরাকে ব্যান করার কথা বলেন খোদ বিমান পরিবহন মন্ত্রী হরদীপ সিং। এরপরই কুণাল কামরা ভিস্তারা কর্তৃপক্ষকে একটি টুইট করেন। সেখানে তিনি লেখেন, “আর কেন? এবার এবার তোমরাও করে দাও। আমি তোমাদের জাজ করব না। আমি ড্রাইভ করে গোয়া যাওয়ার পরিকল্পনা করছি। একটু ব্রেকও তো চাই।” উত্তরে ভিস্তারার তরফ থেকে টুইট করে জানানো হয়, কুণালের প্রতি তাদের সমবেদনা রয়েছে। তারা বলে, “আমাদের এয়ারলাইন্সে যাও। ভারতের পক্ষে যারা, তাদের জন্য সবসময়ই আমাদের দরজা খোলা আছে।” ভিস্তারার মতো কুণাল কামরাকে সাদর অভ্যর্থনা না জানালেও এয়ার এশিয়ার দরজাও যে এখনই বন্ধ হচ্ছে না, তা সংস্থার তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাদের বক্তব্য, বিষয়টি নিয়ে অভ্যন্তরীণ একটি কমিটি তৈরি করা হয়েছে। কমিটি বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। কুণাল কামরাকে নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তা কমিটিই ঠিক করবে।

[ আরও পড়ুন: CAA ইস্যুতে মতবিরোধের জের, প্রশান্ত কিশোরকে বরখাস্ত করল জেডিইউ ]

এদিকে কুণাল কামরার উপর যে ৪ বিমান সংস্থা নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে, তা নিয়ে বেশ ক্ষুব্ধ নেটিজেনরা। তাঁদের মতে, কমেডিয়ানের সঙ্গে দ্বিচারিতা করা হয়েছে। এর মধ্যেও গেরুয়া শিবিরের অঙ্গুলি হেলনের সুষ্পষ্ট ইঙ্গিত দেখছেন তাঁরা। নেটিজেনদের অভিযোগ, এর আগে অর্ণব গোস্বামী তেজস্বী যাদবকে বিমানে একবার হেনস্থা করেছিলেন। তা নিয়ে তেজস্বী টুইটও করেছিলেন। তেজস্বীর এই টুইটের পর অর্ণবকে কিছু বলা হয়নি। অথচ কুণালকে ব্যান করা হচ্ছে। কেন এমন দ্বিচারিতা?

পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ তো সরাসরি বলেছেন, এটা বিজেপি ও মোদির সমর্থনকারীদের সঙ্গে অন্যদের পার্থক্য। বিষয়টিকে ‘ফ্যাসিবাদ’ আখ্যা দিয়েছেন তিনি। 

শুধু তাই নয়। নেটিজেনরা প্রজ্ঞা ঠাকুরের কথাও তুলেছেন। জানিয়েছেন, গত মাসে আসন সংরক্ষণ নিয়ে বচসায় জড়িয়েছিলেন তিনি। সেই কারণে বিমান ছাড়তেও দেরি হয়। যাত্রীদের অসুবিধায় পড়তে হয়। তার জন্য কি কোনও পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন ছিল না?

[ আরও পড়ুন: ইচ্ছাশক্তিতে ভর করেই স্বপ্নপূরণ, ৮ ঘণ্টা কাজ করেও UPSC পাশ করলেন বাস কনডাক্টর ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে