২৪ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ৮ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জোড়া বাঁদর ব্যবহার করে অভিনব ডাকাতি! দিল্লিতে গ্রেপ্তার দুই গুণধর

Published by: Biswadip Dey |    Posted: April 9, 2021 8:40 pm|    Updated: April 9, 2021 8:45 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডাকাতির সহচর বাঁদর (Monkey)! এমনই অদ্ভুত কাণ্ডের সাক্ষী রইল দিল্লি (Delhi)। দু’টি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বাঁদরকে কাজে লাগিয়ে ছিনতাইয়ের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দুই যুবককে। দিল্লির চিরাগ বাসস্ট্যান্ড থেকে তাদের ধরে ফেলে পুলিশ। সপ্তাহখানেক আগে এমন বিচিত্র অপরাধের কথা প্রথম জানতে পারে পুলিশ। অবশেষে মিলল সাফল্য। বাঁদর দু’টিকে পাঠানো হয়েছে ওয়াইল্ডলাইফ এসওএস সেন্টারে।

পুলিশ সূত্রে খবর, এই চক্রে আরও একজন যুক্ত ছিল। তবে তাকে ধরা যায়নি। পলাতক সেই অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। গত ২ মার্চ প্রথম তাদের নামে অভিযোগ দায়ের হয়। এক আইনজীবী পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন, বাঁদর দিয়ে তাঁকে ঘেরাও করে ৬ হাজার টাকা ছিনতাই করে পালিয়েছে অভিযুক্তরা। ওই আইনজীবী জানিয়েছিলেন, তিনি একটি অটো রিকশায় করে যাওয়ার সময় তাঁকে ঘেরাও করে ওই তিনজন। বাঁদরগুলিও তার সামনে এসে বসে। অভিযুক্তদের হুমকির পরে তিনি মানিব্যাগ বের করতেই তা নিয়ে চম্পট দেয় তারা।

[আরও পড়ুন: ব্যাংকে জমা কোটি টাকার বেশি, নির্বাচনী হলফনামায় সম্পত্তির হিসাব দিলেন মদন মিত্র]

দক্ষিণ দিল্লির ডেপুটি পুলিশ কমিশনার অতুল কুমার জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৯২ ধারায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে মালব্যনগর থানায়। সেই সঙ্গে বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ আইনেও অভিযোগ আনা হচ্ছে। এই ধরনের অপরাধ যে বিরল, তা মেনে নিয়েছেন ডেপুটি পুলিশ কমিশনার। বাঁদরদের কাজে লাগিয়ে এমন ডাকাতিতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন তিনি।

কী ভাবে জাল পেতেছিল পুলিশ? জানা যাচ্ছে, আগে থেকেই খবর ছিল। সেই মতো চিরাগ বাসস্ট্যান্ডে লুকিয়ে ছিল পুলিশ। তারপরই সুযোগ বুঝে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়। জেরার মুখে অভিযুক্তরা জানিয়েছে, দিল্লির তুঘলকবাদ কেল্লা এলাকার জঙ্গল থেকে মাস তিনেক আগে বাঁদরগুলিকে ধরেছিল তারা। তারপর তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে ডাকাতির জন্য তৈরি করা হয়।

[আরও পড়ুন: সার্বভৌমত্বে আঘাত! ভারতের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ঢুকে পড়ল মার্কিন যুদ্ধজাহাজ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement