BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ঝাড়খণ্ডে গুলির লড়াই, ৩ মাওবাদীকে নিকেশ করল কোবরা বাহিনী

Published by: Sayani Sen |    Posted: February 24, 2019 8:46 am|    Updated: February 24, 2019 1:58 pm

Two Maoists were killed

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঝাড়খণ্ডে মাওবাদী দমনে বড় সাফল্য সিআরপিএফের কোবরা বাহিনীর। রবিবার সকালে গুমলায় মাওবাদী এবং নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির লড়াই চলে৷ এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তিনজন মাওবাদীকে নিকেশ করা হয়েছে৷ তাদের কাছ থেকে দুটি একে ৪৭-সহ বেশ কয়েকটি অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে৷ এলাকায় এখনও জারি রয়েছে তল্লাশি৷

ঝাড়খণ্ডের গুমলায় মাওবাদীরা লুকিয়ে রয়েছে বলেই খবর পায় ঝাড়খণ্ড পুলিশ ও ২০৯ কোবরা বাহিনীর সিআরপিএফ জওয়ানেরা৷ গোপন সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে রবিবার সকাল সাড়ে ছটা নাগাদ ওই এলাকায় হানা দেয় যৌথ বাহিনী৷ গুমলায় যৌথ বাহিনী পৌঁছনো মাত্রই মাওবাদীরা নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে৷ পালটা জবাব দেয় নিরাপত্তা বাহিনী৷ শুরু হয় গুলির লড়াই৷ প্রায় ঘণ্টাদুয়েকের চেষ্টায় সাফল্য পায় সিআরপিএফের কোবরাবাহিনী এবং ঝাড়খণ্ড পুলিশ৷ এখনও পর্যন্ত তিনজন মাওবাদীকে নিকেশ করা সম্ভব হয়েছে৷ তাদের কাছ থেকে দুটি একে ৪৭ এবং বেশ কিছু অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে৷ ওই এলাকায় আরও বেশ কয়েকজন মাওবাদী গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে বলেই অনুমান নিরাপত্তাবাহিনীর৷ তাই গোটা এলাকায় কড়া সতর্কতা জারি করা হয়েছে৷ মাও দমনে এখনও তল্লাশি অভিযান জারি রেখেছে নিরাপত্তাবাহিনী৷

[‘টার্গেট সন্ত্রাস, কাশ্মীরিরা নন’, উপত্যকাবাসীর পাশে দাঁড়ানোর বার্তা মোদির]

এর আগে গত ৭ ফেব্রুয়ারি বিজাপুরের বিরামগড় থানা এলাকায় মাওবাদীরা গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে বলে গোপন সূত্রে খবর পায় নিরাপত্তাবাহিনী৷ স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স এবং ডিস্ট্রিক্ট রিজার্ভ গার্ড তল্লাশি শুরু করে৷ দু’পক্ষের গুলির লড়াইয়ের পর দশজন মাওবাদীকে খতম করা হয়৷ তাদের কাছ থেকে অন্তত ১১টি অস্ত্রশস্ত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ তার আগে গত ২৯ জানুয়ারি পশ্চিম সিংভূমের রোটকাটুলি গ্রামে গুলির লড়াইয়ে নিকেশ হয় পাঁচ মাওবাদী। এবার গুমলায় দুজন মাওবাদী নিকেশ হল৷ তবে পালটা হামলার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। ভাল করে তল্লাশি করেই এলাকার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে চাইছে কোবরা বাহিনী। ঘটনাস্থলে রয়েছে পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিক ও কর্মীরাও।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে