BREAKING NEWS

২৩ চৈত্র  ১৪২৬  সোমবার ৬ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

ইট হাতে লাইব্রেরিতে লুকিয়েছিল ‘দুষ্কৃতী’রা! জামিয়া কাণ্ডে প্রকাশ্যে নয়া ভিডিও

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 16, 2020 7:36 pm|    Updated: February 16, 2020 7:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (Jamia Millia Islamia) পুলিশের লাঠিচার্জের ঘটনায় নয়া মোড়। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম নতুন একটি ভিডিও প্রকাশ করে দাবি করেছে, জামিয়ায় পড়ুয়াদের উপর হামলার আগে প্ররোচনা দেওয়া হয়েছিল পুলিশকে। কোনও পড়ুয়া নয়, দুষ্কৃতীদের ধরতেই ক্যাম্পাসের ভিতরে ঢুকেছিল দিল্লি পুলিশ। নতুন ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসার পর ফের শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

১৫ ডিসেম্বর সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বিরোধী বিক্ষোভ চলাকালীন জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে পুলিশি বর্বরতার অভিযোগ উঠেছিল। পড়ুয়াদের অভিযোগ ছিল, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক নিয়ন্ত্রিত দিল্লি পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকে বেনজিরভাবে আক্রমণ শানিয়েছেন তাঁদের উপর। শনিবার ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, সেদিন জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে পাঠরত বেশ কয়েকজন পড়ুয়ার উপর নির্বিচারে লাঠি চালিয়েছে দিল্লি পুলিশ। ১৫ ডিসেম্বর পুলিশ আধিকারিকরা দাঙ্গা মোকাবিলার সময় ব্যবহৃত ‘রায়ট গিয়ার’ পরে ও মুখে রুমাল বেঁধে বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে প্রবেশ করে। এরপর কোনও প্ররোচনা ছাড়াই বেধড়ক লাঠিচার্জ করে পড়ুয়াদের উপর।

[আরও পড়ুন: হাতিয়ার জামিয়ার ভিডিও, অমিত শাহকে ‘মিথ্যুক’ বলে তোপ প্রিয়াঙ্কার]

এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসার কয়েক ঘণ্টা পর একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম আরও একটি ভিডিও সামনে আসে। যাতে দেখা যায়, পুলিশ জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে প্রবেশ করার আগে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে পাথর হাতে কয়েকজন ঘোরাফেরা করছে। ওই ‘দুষ্কৃতী’রা এরপর লাইব্রেরিতে গিয়ে আশ্রয় নয়। সেখানে তাঁদের লুকিয়ে থাকতেও দেখা যায়। দিল্লি পুলিশের দাবি, যাঁরা পাথর হাতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকেছে, তাঁরা আসলে দাঙ্গাবাজ। এরাই বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে গাড়িতে আগুন লাগিয়েছিল। পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে এরা লাইব্রেরিতে আশ্রয় নেই। পুলিশ এই দুষ্কৃতীদের খুঁজতেই লাইব্রেরিতে ঢোকে। এবং দুষ্কৃতীদের উপরই লাঠি চালায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement