১৭  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিজেপি ক্ষমতায় ফিরলেই অভিন্ন দেওয়ানি বিধি, ভোটের আগে বড় ঘোষণা উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 12, 2022 3:49 pm|    Updated: February 12, 2022 4:00 pm

Uniform Civil Code in Uttarakhand if BJP retains power, says Pushkar Singh Dhami | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরাখণ্ড ভোটের প্রচারের শেষ মুহূর্তে বড় ঘোষণা করে দিলেন বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামি (Uniform Civil Code)। বিজেপি ক্ষমতায় ফিরলেই উত্তরাখণ্ডে জারি করা হবে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি, দাবি করলেন ধামি। যদিও বিরোধীদের বক্তব্য, পরাজয় নিশ্চিত জেনে শেষ মুহূর্তে হিন্দুত্বের জিগির তুলতেই এই ধরনের ঘোষণা করেছেন বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী।

শনিবার এক সাক্ষাৎকারে ধামি (Pushkar Singh Dhami) বলেন, বিজেপি ক্ষমতায় এলেই রাজ্যে জারি করা হবে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি। উত্তরাখণ্ডের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, “নতুন সরকারের শপথগ্রণের পরই আমরা একটা কমিটি তৈরি করব। সেই কমিটিই অভিন্ন দেওয়ানি বিধির একটা খসড়া তৈরি করবে। সেই অভিন্ন বিধিতে বিয়ে, বিবাহ-বিচ্ছেদ, উত্তরাধিকার এবং সম্পত্তি সংক্রান্ত আইন সব ধর্মের জন্য একই হবে।” উত্তরাখণ্ডের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, এটা তাঁর দলের শপথ। দেবভূমির সংস্কৃতি অটুট রাখতে এই পদক্ষেপ করতে চান তিনি।

[আরও পড়ুন: CAA কাণ্ডে বিক্ষোভকারীদের থেকে ক্ষতিপূরণ চেয়ে ভর্ৎসিত যোগী সরকার, কড়া নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

ধামি বলছেন, অভিন্ন দেওয়ানি বিধি কার্যকর হলে সামাজিক সৌহার্দ্য বজায় থাকবে। লিঙ্গবৈষম্য দূর হবে। মহিলারা শক্তিশালী হবেন। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, এর ফলে সংবিধানের (Constitution of India) মূল ভাবধারা বজায় থাকবে। ধামির বক্তব্য, সুপ্রিম কোর্টও বারবার অভিন্ন দেওয়ানি বিধির পক্ষে সওয়াল করেছে। কিন্তু এখনও এ নিয়ে কোনও পদক্ষেপ এখনও করা হয়নি।

[আরও পড়ুন: বাংলাতেও হিজাব নিয়ে ধর্মীয় অশান্তি ছড়ানোর ছক ISI-এর, গোয়েন্দা রিপোর্টে চাঞ্চল্য]

‘একটি রাষ্ট্রে দুই প্রধান, দুই নিশান ও দুই বিধান থাকতে পারে না।’ শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের এই বাক্যবন্ধ বিজেপির নীতি নির্ধারণে স্পষ্ট। ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই এক দেশ, এক আইনের পক্ষে সওয়াল করছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার। তবে বিরোধীদের প্রবল বাধায় তা এখনও কার্যকর হয়ে ওঠেনি। কর্ণাটকে যখন হিজাব (Hijab Row) নিয়ে বিতর্ক চরমে, তখন উত্তরাখণ্ডের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণা ভোটবাক্সে শেষ মুহূর্তে বিজেপিকে ডিভিডেন্ট দিতে পারে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে