BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ডিএ বৃদ্ধি কেন্দ্রের, মার্চের বেতনের সঙ্গেই কর্মীরা হাতে পাবেন বর্ধিত মহার্ঘ ভাতা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 13, 2020 6:32 pm|    Updated: March 13, 2020 6:32 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা বৃদ্ধিতে অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। পয়লা জানুয়ারি, ২০২০ থেকে কার্যকর হবে বর্ধিত ডিএ। চার শতাংশ হারে ডিএ বৃদ্ধিতে ডিয়ারনেস অ্যালাউয়েন্স ও অবসরপ্রাপ্তদের ডিয়ারনেস রিলিফ বেড়ে দাঁড়াল ২১ শতাংশে। এতে উপকৃত হবেন মোট ৫০ লক্ষ কর্মচারী এবং ৬৫ লক্ষ পেনশনভোগী। সপ্তম বেতন কমিশনের প্রস্তাবমতো আজ এতে মন্ত্রিসভার সিলমোহর পড়ে যাওয়ায় খুশি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা।

বছরে মোট দু’বার কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা বা ডিএ বাড়ানো হয়। এই অর্থবর্ষ শেষ হওয়ার আগেই প্রথমার্ধ্ব অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ডিএ বৃদ্ধি ঘোষণা করা হল। জানা গিয়েছে, মার্চের বেতনের সঙ্গেই বাড়তি ডিএ হাতে পাবেন কর্মীরা। যার জেরে বেতনের অঙ্ক ৭০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত বেড়ে যাবে। গত সপ্তাহেই এনিয়ে সওয়াল করেন অর্থমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। তাঁর মতে, মুদ্রাস্ফীতি এবং মূল্যবৃদ্ধির কথা মাথায় রেখে এবার ডিএ বৃদ্ধিতে সিলমোহর দেওয়া উচিত। সেইমতো আজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা বৈঠকে বসে মহার্ঘ ভাতা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

[আরও পড়ুন: ‘CAA কারও নাগরিকত্ব কাড়বে না’, রাজ্যসভায় স্বীকার কপিল সিব্বলের]

এদিকে, কেন্দ্রের এই ঘোষণার পর রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা বকেয়া ডিএ হাতে না পাওয়ায় তাঁদের মধ্যে বিক্ষোভ দেখা দেয়। রাজ্য কো-অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যরা অভিযোগ করেন যে প্রথমে ১৭ শতাংশ ও এখন কেন্দ্রের ডিএ বৃদ্ধিতে মোট ২১ শতাংশ ডিএ তাঁদের বকেয়া। এই প্রাপ্য না দেওয়ার অর্থ বাংলার কর্মীদের বঞ্চনা। রাজ্য সরকারের বেতন কমিশন (Pay Commission) চালু করেছে কোনওরকম মহার্ঘভাতা ঘোষণা ছাড়াই, যা বিরল।

ডিএ ঘোষণা করা যে রাজ্য সরকারের পক্ষে এখনই সম্ভব নয়, তা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের আর্থিক পরিস্থিতি খারাপ, তা উল্লেখ করে তিনি নিজের সরকারের অপরাগতার কথা বিধানসভায় বলেছন। কিন্তু তাতে মন গলেনি কর্মীদের। এর বিরোধিতায় ও নিজেদের প্রাপ্য অর্থপ্রাপ্তির দাবিতে আগামী সোমবার কলকাতা ও জেলার রাজ্য সরকারি অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখাবেন কো-অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যরা।

[আরও পড়ুন: উঠল জনসুরক্ষা আইনের খাঁড়া, ৭ মাস পর মুক্তি পেলেন ফারুখ আবদুল্লা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement