BREAKING NEWS

১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা! ট্রাকের ধাক্কায় গুরুতর আহত উন্নাওয়ের সেই নির্যাতিতা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 28, 2019 8:19 pm|    Updated: July 29, 2019 5:52 pm

Unnao woman who accused BJP MLA of rape hit by truck; critical

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তাঁকে ধর্ষণের অভিযোগে জেল খাটছেন স্থানীয় বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেনেগার ও তাঁর ভাই অতুল সিং। উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের সেই ধর্ষিতা গুরুতর জখম হলেন একটি ট্রাকের ধাক্কায়। রবিবার দুর্ঘটনাটি ঘটেছে রায়বরেলি এলাকায়। ঘটনাস্থল থেকে তাঁকে উদ্ধার করে লখনউ হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। যদিও এই দুর্ঘটনায় ওই ধর্ষিতার কাকিমা ও এক আত্মীয়ের মৃত্যু হয়েছে। আর গুরুতর জখম হয়েছেন ধর্ষিতা ও তাঁর আইনজীবী। খবর পেয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করলেও এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। তবে ঘাতক ট্রাকটি আটক করা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: পেট ব্যথার দাওয়াই কন্ডোম! প্রেসক্রিপশন দেখে হতবাক রোগী]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, উন্নায়ের ওই নির্যাতিতার কাকা মহেশ সিং একটি মামলার জেরে রায়বরেলি জেলে বন্দি রয়েছেন। রবিবার তাঁর সঙ্গে দেখা করতে কাকিমা ও আইনজীবীর সঙ্গে একটি গাড়ি করে আসছিলেন ওই যুবতী। রায়বরেলির কাছে আচমকা একটি ট্রাক এসে তাঁদের গাড়িতে সজোরে ধাক্কা মারেন। এর জেরেই ঘটে যায় এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা।

এদিকে, এই দুর্ঘটনা কথা জানাজানি হতেই প্রশাসনের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে বিরোধীরা। তাদের অভিযোগ, বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গার ও তাঁর ভাইকে বাঁচাতেই এই দুর্ঘটনা ঘটানো হয়েছে। প্রমাণ লোপাটের জন্যই এই চেষ্টা। এর আগে নির্যাতিতার বাবাকে খুন করে মামলা হালকা করার চেষ্টা করেছিল অভিযুক্তরা। কিন্তু, তাতে কাজ না হওয়ায় যুবতীটিকেই দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়া ছক কষা হয়। এটা তারই ফলশ্রুতি।

[আরও পড়ুন: জঙ্গির গুলিতে নিহত জওয়ান, দাদাকে সম্মান জানাতে সেনায় যোগ দুই ভাইয়ের]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, উত্তরপ্রদেশে বিধানসভার ফলাফল প্রকাশ হওয়ার কয়েকমাস পরেই ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন ওই যুবতী। তাঁর অভিযোগ ছিল, বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ ও তাঁর ভাইয়ের নামে। কিন্তু, পুলিশ কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বাড়ির সামনে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তিনি। বিষয়টি জানাজানি হতেই বিতর্ক শুরু হয় গোটা দেশজুড়ে। এরপরই নড়েচড়ে বসে উত্তরপ্রদেশের প্রশাসন। যোগীর নির্দেশে অভিযুক্ত বিধায়ক ও তাঁর ভাই গ্রেপ্তার করা হয়। এই মামলার জেরে ২০১৮ সাল থেকেই জেলবন্দি রয়েছেন তাঁরা। সেখান থেকেই তিনি ওই ধর্ষিতাকে হুমকি দিচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। আর এর মাঝেই এই দুর্ঘটনা ঘটল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে