BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‌যোগীর রাজ্যে তিন বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ, আখের খেত থেকে উদ্ধার মৃতদেহ

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: September 4, 2020 10:06 am|    Updated: September 4, 2020 10:17 am

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) রাজ্যে ফের নাবালিকাকে ধর্ষণ করে খুন। ২৪ ঘণ্টা ধরে নিখোঁজ থাকার পর আখের খেত থেকে উদ্ধার হল তিন বছরের খুদের ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ। আর এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) লাখিমপুর খেরি এলাকায়। তবে পুরনো শত্রুতার জেরেই এই ধর্ষণ করে নির্মমভাবে খুন বলে মনে করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: করোনা LIVE UPDATE: অমানবিক! কেষ্টপুরে কোভিড আক্রান্তের ফ্ল্যাটে তালা লাগিয়ে দিলেন প্রতিবেশী]

জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত বুধবার দিন থেকে। সেদিন থেকেই আচমকা নিখোঁজ হয়ে যায় তিন বছরের ওই খুদে চারিদিকে খোঁজার পরও সন্ধান না পাওয়া যাওয়ায় পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন ওই শিশুটির মা–বাবা। তদন্তে নামে পুলিশও। এরপরই বৃহস্পতিবার গ্রামের সীমান্তে অবস্থিত একটি আখের খেত থেকে শিশুটির মৃতদেহ উদ্ধার হয়। সেসময় তার মাথায় আঘাতের চিহ্নও লক্ষ্য করা যায়।
পুলিশকে মৃত নাবালিকার বাড়ির লোক জানিয়েছে, ঘটনার জন্য দায়ী লেখরাম ‌নামে গ্রামেরই এক বাসিন্দা। পুরনো শত্রুতার জেরেই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে ওই ব্যক্তি। এমনটাই অভিযোগ মৃত নাবালিকার বাড়ির লোকের। এদিকে, মর্মান্তিক এই ঘটনায় খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ। মেয়েটির মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।এদিকে, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই শিশুটিকে ধর্ষণ করে, তারপর মাথায় কোনও ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে খুন করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ফের উত্তপ্ত কাশ্মীর, সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে গুরুতর আহত ভারতীয় সেনার মেজর]

তবে এই প্রথম নয়, সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশে এরকম একাধিক ঘটনা সামনে এসেছে। বারেবারে যা আঙুল তুলছে যোগী প্রশাসনের ব্যর্থতার দিকেই। এই লাখিমপুর এলাকাতেই সম্প্রতি ১৭ বছরের এক ছাত্রীকে ধর্ষণের শিকার হতে হয়। স্কলারশিপের ফর্ম ফিলাপ করতে বেরিয়ে কয়েকজনের লালসার শিকার হয় ওই ছাত্রী। গ্রাম থেকে ২০০ মিটার দূরে একটি শুকনো পুকুর থেকে তার ছিন্নবিচ্ছিন্ন মৃতদেহ উদ্ধার হয়। ধর্ষণ করে নির্মমভাবে খুন করা হয় তাকে। যা সামনে আসতেই গোটা দেশে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন প্রত্যেকে। মুখ পুড়েছিল যোগী প্রশাসনের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement