Advertisement
Advertisement
বিয়ে

সিনেমাকে হার মানাল বাস্তব! কুখ্যাত গ্যাংস্টারকে বিয়ে করে উধাও মহিলা কনস্টেবল

নিখোঁজ কর্মীর সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

UP cop meets dreaded gangster at court, falls in love and marries him
Published by: Soumya Mukherjee
  • Posted:August 9, 2019 5:40 pm
  • Updated:August 9, 2019 5:40 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েক বছর আগে বলিউডের একটি সিনেমাতে গ্যাংস্টারের প্রেমে পড়তে দেখা গিয়েছিল বঙ্গতনয়া বিপাশা বসুকে। তবে পরিণতি শেষ পর্যন্ত সুখকর হয়নি সেই সম্পর্কের। কিন্তু, সিনেমার সেই পুলিশ ও অপরাধীর অপূর্ণ প্রেম পূর্ণতা পেল বাস্তবে। উত্তরপ্রদেশের এক কুখ্যাত গ্যাংস্টারের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে করল এক মহিলা কনস্টেবল। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গ্রেটার নয়ডা এলাকায়।

[আরও পড়ুন: উন্নাও মামলা: কুলদীপের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও অপহরণের চার্জ গঠন আদালতে]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের গ্যাংস্টার রাহুল থারাসানা(৩০)র সঙ্গে একটি আদালতে প্রথম দেখা হয়েছিল কনস্টেবল পায়েলের। সময়টি ছিল ২০১৪ সালের ৯ মে। এক ব্যবসায়ী মনমোহন গোয়েলকে খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছিল রাহুল। সেই মামলার শুনানির জন্য সুরজপুর আদালতে হাজিরা দিতে গিয়েছিল সে। সেখানে প্রথম দেখাতেই তার প্রেমে পড়ে গিয়েছিল উত্তরপ্রদেশ পুলিশের মহিলা কনস্টেবল পায়েল। এরপর থেকে প্রায়ই যোগাযোগ হতে থাকে দু’জনের। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে ঘনিষ্ঠতাও। এর মাঝেই একডজনের বেশি ছিনতাই ও খুনের ঘটনায় বার কয়েক জেল খেটে আসে রাহুল। কিন্তু, তা সত্ত্বেও পায়েলের সঙ্গে সম্পর্কে কোনও প্রভাব পড়েনি।

Advertisement

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে দুজনের একটি ছবি পোস্ট করে রাহুল। তাতে দেখা যায় যে একটি মণ্ডপে বিয়ের সাজে দাঁড়িয়ে আছে রাহুল ও পায়েল। জায়গাটি কোথায় তা জানা না গেলেও তারা যে বিয়ে করেছে তা ওই ছবি দেখে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছিল। আর এরপরই বিতর্ক শুরু হয় তাদের বিয়ে নিয়ে। একজন পুলিশ কনস্টেবল হয়েও পায়েল কী করে রাহুলের মতো একজন গ্যাংস্টারকে বিয়ে করতে পারে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন তার সিনিয়াররা। জানা যায়, বিয়ের সময় সে উত্তরপ্রদেশের গৌতমবুদ্ধ নগরে ডিউটি করত। কিন্তু, তারপর থেকে সে কোথায় রয়েছে তা কেউ জানেন না। তবে ২০১৭ সালে বেআইনি অস্ত্র রাখার অভিযোগে রাহুল গ্রেপ্তার হয়ে জেলবন্দি রয়েছে বলে জানা যায়।

Advertisement

[আরও পড়ুন: রেলে কর্মী ছাঁটাই নয়, বুকিং ক্লার্কের কাজ কমায় তাঁরাই টিটিই’র ভূমিকায়]

এপ্রসঙ্গে নয়ডার পুলিশ সুপার (গ্রামীণ) রণবিজয় সিং বলেন, ‘ওই মহিলা কোথায় ডিউটি করছে তা জানার চেষ্টা চলছে। এই ঘটনার জন্য তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপও নেওয়া হতে পারে। এ বিষয়ে জেলা পুলিশের তরফে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে মহিলা কনস্টেবলকে শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।’

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ