১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

UP Election 2022: ‘আগে ক্ষমা চান, তারপর ভোট চাইবেন’, লখনউয়ে অখিলেশের পাশে বসে যোগীকে আক্রমণ মমতার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 8, 2022 12:59 pm|    Updated: February 8, 2022 1:23 pm

UP Election 2022: Mamata Banerjee attacks Yogi Adityanath with strong words in Lucknow | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের হাইভোল্টেজ নির্বাচনের (UP Election 2022) আগে বিজেপি বিরোধী সুর চড়াতে লখনউয়ে পা রেখেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সোমবার তিনি লখনউয়ে নেমেই নিজের বার্তা স্পষ্ট করেছেন। মঙ্গলবার সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদবকে (Akhilesh Yadav)পাশে নিয়ে বিজেপি বিরোধিতায় আরও শান দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। সরাসরি যোগী আদিত্যনাথকে একের পর এক বাক্যবাণে বিদ্ধ করলেন তিনি। গঙ্গায় কোভিডে মৃতদের দেহ ভাসানো থেকে শুরু করে উন্নাও গণধর্ষণ – সমস্ত বিষয় উল্লেখ করে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাতেই বুঝিয়ে দিলেন, উত্তরপ্রদেশের মাটিতে নির্বাচনী লড়াইয়ে অখিলেশের হাত কতটা শক্ত করে ধরতে তৎপর তৃণমূল (TMC)।

 

এদিন পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী লখনউয়ে (Lucknow)যৌথ ভারচুয়াল প্রচার শুরু করেন অখিলেশ যাদব-মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অখিলেশের সমর্থনে এত তৎপর হওয়ায় তৃণমূল সুপ্রিমোকে ধন্যবাদ জানান সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো। এরপর নিজে অল্প সময় বক্তব্য শেষ করে মাইক্রোফোন এগিয়ে দেন মমতার দিকে। তৃণমূল সুপ্রিমো গোড়া থেকেই বিজেপি বিরোধিতায় চড়া সুর তোলেন। যোগীর উদ্দেশে কার্যত হুঁশিয়ারির সুরে বলেন, ”আগে ক্ষমা চান, তারপর ভোট চাইবেন।” এ প্রসঙ্গে তাঁর আরও আক্রমণ, ”বাংলা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরাবেন বলে তো গিয়েছিলেন প্রচারে। কিন্তু সেখানে আপনাদের ফল কী হল, দেখলেন তো। এবার বিজেপিকে উত্তরপ্রদেশের মাটি থেকে উৎখাত করার জন্য অখিলেশ যে লড়াই চালাচ্ছেন, তাতে ওর হয়ে আমিও এতে শামিল।” 

[আরও পড়ুন: ক্লিনিকে লম্বা লাইন নয়, পাড়ার স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকেই বিশেষজ্ঞর পরামর্শ পাবেন কলকাতাবাসী]

উত্তরপ্রদেশে বিজেপির বিরুদ্ধে লডা়ইয়ের জন্য সমমনোভাবাপন্ন দলগুলিকে ডাক দিয়েছিলেন সোমবারই। বলেছিলেন, ”অখিলেশের লড়াইয়ে বিজেপি বিরোধী সকলেই শামিল হোক। আমি চাই, সপা জিতুক, বিজেপি হারুক।” মঙ্গলবারও একই সুর শোনা গেল তাঁর গলায়। বললেন, ”বিজেপিকে হঠাতে অখিলেশের লডা়ইয়ে শামিল হয়ে আমি আজ এখানে এসেছি। আবার ৩ তারিখ বারাণসী যাব। সেখানেও প্রচার করব। আমার বিশ্বাস, এখানে অখিলেশরাই জিতবে, বিজেপি হারবে। আপনারা সবাই অখিলেশকে সমর্থন করুন। ওদের জিততে সাহায্য় করুন। এবারও যদি যোগী সরকার ফেরে, তাহলে আমজনতার দুর্দশার শেষ থাকবে না।” 

[আরও পড়ুন: আহমেদাবাদ বিস্ফোরণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত ৪৯ জন, রায় ঘোষণা বিশেষ আদালতের]

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকে সাড়া দিয়ে সমাজবাদী পার্টির নেত্রী জয়া বচ্চনকে কলকাতায় প্রচারে পাঠিয়েছিলেন অখিলেশ। জয়া কলকাতায় রোড শো করেন তৃণমূল প্রার্থীদের নিয়ে। সাংবাদিক বৈঠক থেকে বারবার তৃণমূল সরকারকে ফের ক্ষমতায় আনার বার্তা দেন। সেসব কথা স্মরণ করে অখিলেশকে ধন্যবাদ জানান মমতা। এরপরই তাঁর বার্তা, শুধু বাংলা বা উত্তরপ্রদেশেই নয়, বিজেপিকে সরানোর ডাক উঠুক গোটা দেশ থেকেই। লখনউয়ে তাঁর রাজনৈতিক কর্মসূচি আপাতত  শেষ। এরপর পাখির চোখ মোদির কেন্দ্র বারাণসী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে