BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ঘুম থেকে দেরিতে ওঠায় স্ত্রীকে তিন তালাক স্বামীর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 28, 2017 10:20 am|    Updated: December 28, 2017 10:20 am

UP: Woman given triple talaq for waking up late

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বৃহস্পতিবার লোকসভায় তিন তালাক বিল পেশ করতে চলেছে কেন্দ্র।  তাৎক্ষণিক তিন তালাককে অসাংবিধানিক ঘোষণা করেছে  দেশের সর্বোচ্চ আদালাতও। দীর্ঘ লড়াইয়ের পর সুবিচার পায় মুসলিম মহিলা সমাজ। তবুও তিন তালাকের এক ঘটনায় তোলপাড় যোগীর রাজ্যে।

[তিন তালাক বিল প্রত্যাহারের দাবি মুসলিম সংগঠনের]

উত্তরপ্রদেশের রামপুর জেলার আজিমনগরের বাসিন্দা গুল আফসান নামের মহিলার অভিযোগ, মঙ্গলবার সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হওয়ায় তাঁকে প্রচণ্ড মারধর করে স্বামী কাসিম, তারপর তিন তালাক দেয়। এরপর তাঁকে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে চম্পট দেয় সে। খবর পেয়ে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকে মহিলাকে উদ্ধার করে পুলিশ। নির্যাতিতা পুলিশের সামনে জানান, মাত্র ছয় মাস আগে তাঁর বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পর থেকেই তাঁর উপর চরম মানসিক ও শারীরিক অত্যাচার চালাত কাসিম। প্রতিবাদ করলে আরও বেশি নির্যাতন  করা হত তাঁর উপর। তিন তালাকের এই ঘটনায় সাড়া গেলেও অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করেনি পুলিশ। আজিমনগরের শীর্ষ পুলিশ আধিকারিক সঞ্জয় যাদব জানান, নির্যাতিত কোনও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি। তাই এখনই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছেন না তাঁরা। তবে যোগীর রাজ্যে এমন ঘটনা বিরল নয়। এর আগেও একাধিক ঘটনায় পুলিশে অভিযোগ করলেও কোনও ফল হয়নি বলে অভিযোগ জানিয়েছেন নির্যাতিতারা।

দেশে তিন তালাককে ফৌজদারি অপরাধের আওতায় আনার জন্য এদিনই সংসদে বিলটি পেশ করবেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ। তিন তালাক প্রথা তুলে দিতে কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে দেশ জুড়ে শুরু হয়েছে প্রবল বিতর্ক। প্রধানমন্ত্রী মোদির বিরুদ্ধে শরিয়তে নাক গলানোর অভিযোগ আনেন মৌলবিরা। বিলটি পাশ হলে তিন তালাকে দোষী সাব্যস্ত হলে তিন বছরের জেলের সাজা হতে পারে। বিলটির বিরোধিতায় সরব হয়েছে কংগ্রেস-সহ একাধিক বিরোধী দল। বিরোধিতায় নেমেছে মুসলিম সংগঠনগুলিও। তবে মহিলাদের অধিকারের পক্ষে অনড় কেন্দ্র।

[সুপ্রিম রায়ই সার, ফের ফোনে তিন তালাক বধূকে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে