Advertisement
Advertisement
Uttar Pradesh

উত্তরপ্রদেশে ফের দলিত কন্যাকে ধর্ষণ, অপমানে আত্মহননের পথ বাছল নাবালিকা

জঙ্গলে শৌচকর্ম করতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয় ওই নাবালিকা।

Uttar Pradesh: teenaged girl allegedly consumed poison and died a day after she was raped | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী।

Published by: Subhajit Mandal
  • Posted:May 5, 2022 9:38 am
  • Updated:May 5, 2022 3:11 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) উত্তরপ্রদেশ যেন ধর্ষণ প্রদেশ! ললিতপুরের পর এবার ধর্ষণের শিকার হতে হল ফতেপুরের এক দলিত নাবালিকাকে। ১৫ বছর বয়সের মেয়েটি অপমানের গ্লানি সহ্য করতে না পেরে শেষপর্যন্ত বেছে নিল আত্মহননের পথ।

পুলিশ (UP Police) সূত্রের খবর, মঙ্গলবার সন্ধেয় ফতেপুরের চাঁদপুর এলাকার বাসিন্দা ওই নাবালিকা পাশের জঙ্গলে শৌচকর্ম করতে যায়। তারপর দীর্ঘক্ষণ বাড়ি ফেরেনি সে। সন্ধে গড়িয়ে রাত হওয়ার পরও মেয়ে বাড়ি না ফেরায় খোঁজাখুঁজি শুরু করেন পরিবারের সদস্যরা। রাতের দিকে ওই জঙ্গলে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পাওয়া যায় নির্যাতিতাকে। অভিযোগ, ওই নাবালিকাকে জঙ্গলে একা পেয়ে তাঁকে ধর্ষণ করে স্থানীয় এক যুবক। ফতেপুরের পুলিশ সুপার রাজেশ কুমার সিং জানিয়েছেন, সংজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার করে তাঁকে হাসপাতালে ভরতি করেন স্থানীয়রাই।

Advertisement

[আরও পড়ুন: নেই শিক্ষক, ক্লাস নিচ্ছে পঞ্চম শ্রেণির পড়ুয়ারা! মোদির রাজ্যে সরকারি স্কুলের বেহাল দশা]

কিন্তু পরদিন সকালেই অপমানে কীটনাশক খায় সে। এবার আর তাঁকে বাঁচানো যায়নি। তবে মৃত্যুর আগে ওই নির্যাতিতা হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছে নিজের ধর্ষকের নাম বলে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন ফতেপুরের পুলিশ সুপার রাজেশ কুমার সিং। নির্যাতিতার মৃত্যুকালীন বয়ান এবং তাঁর বাবা-মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে ধর্ষণের মামলা রুজু করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত যুবক গ্রেপ্তারও হয়েছে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে থানায় ধর্ষণ গণধর্ষিতাকে! গ্রেপ্তার অভিযুক্ত অফিসার, নোটিস মানবাধিকার কমিশনের]

প্রসঙ্গত, উত্তরপ্রদেশের ললিতপুরের ধর্ষণকাণ্ড (Lalitpur Rape Case) এখনও খবরের শিরোনামে। গত ২২ এপ্রিল চার যুবক ১৩ বছর বয়সি এক নাবালিকাকে ভোপালে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করে। ২৬ এপ্রিল সকালে তাকে পালি থানার সামনে ফেলে দিয়ে যায় অভিযুক্তরা। ঘটনার পরের দিন অর্থাৎ ২৭ এপ্রিল ফের থানায় ডেকে পাঠানো হয় ওই নাবালিকা এবং তার আত্মীয়াকে। বলা হয়, গণধর্ষণের (Gangrape) বয়ান রেকর্ড করতেই ডাকা হচ্ছে তাকে। সারাদিন থানায় রাখা হয় নাবালিকাকে। সেই সময়েই একটি আলাদা ঘরে ডেকে নিয়ে গিয়ে তাকে থানার ওসি ফের ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ উঠছে। ওই ঘটনায় ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশ সরকারকে নোটিস দিয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। একযোগে সরকারকে কাঠগড়ায় তুলছে বিরোধী শিবির। এর মধ্যে ফের ধর্ষণের খবর যোগী রাজ্যে।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ