১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সেতু ভেঙে পড়ার জের, চার আধিকারিককে বহিষ্কার করে তদন্ত কমিটি গঠন যোগীর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 16, 2018 2:46 pm|    Updated: May 16, 2018 2:46 pm

Varanasi flyover collapse: 2 project managers, engineers suspended

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বারাণসী বিপর্যয়ের তদন্তে তড়িঘড়ি কমিটি গড়ল উত্তরপ্রদেশ সরকার৷ পাঁচ সদস্যের একটি বিশেষ তদন্তকারী দল যত দ্রুত সম্ভব উড়ালপুল বিপর্যয়ের কারণ খতিয়ে দেখে সরকারের কাছে রিপোর্ট পেশ করবে৷ সেতু বিপর্যয়ের জেরে চারজন আধিকারিক-সহ দু’জন প্রজেক্ট ইনচার্জ ও দুই ইঞ্জিনিয়ারকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে খবর৷

[দশম শ্রেণির পরীক্ষায় ফেল করল ছেলে, আনন্দে মিষ্টি বিতরণ বাবার]

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তদন্তকারী আধিকারিক রাজপ্রতাপ সিং বলেন, ‘‘দুর্ঘটনার কারণ নিয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না৷ আগে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হোক, তারপর বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারব৷’’ উত্তরপ্রদেশ ব্রিজ নির্মাণ কর্পোরেশন সূত্রে জানা গিয়েছে, ২২৬১ মিটার লম্বা সেতুটি নির্মাণে ১২৬ কোটি টাকা খরচ করা হয়৷ দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ থাকার পর সম্প্রতি কাজে গতি আসে৷ কিন্তু, কাজে গতি এলেও ১২৬ কোটি টাকা খরচ করে নির্মাণ হওয়া সেতুটি কীভাবে ভেঙে পড়ল? এর নেপথ্যে রয়েছে কি কোনও বড়সড় কেলেঙ্কারি? ঠিক কোথায় ছিল গলদ? সেতু নির্মাণের নকশায় কোনও ভুল ছিল কি না, এই মুহূর্তে তদন্তকারী দলের প্রতিনিধিদের মাথায় ঘুরছে এমনই বেশ কিছু প্রশ্ন৷

দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির লোকসভা কেন্দ্র বারাণসীতে মঙ্গলবার তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে নির্মীয়মাণ উড়ালপুল এখনও পর্যন্ত মৃত ১৮, গুরুতর জখম ১১ জনের বেশি৷ দুর্ঘটনার পরপরই টুইটারে দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ কথাও বলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সঙ্গে৷ ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের জন্য ঘোষণা করা হয়েছে ক্ষতিপূরণ৷

[‘ইয়েস ম্যাম’ বা ‘ইয়েস স্যার’ নয়, এবার স্কুলে পড়ুয়াদের বলতে হবে ‘জয় হিন্দ’]

এদিনের এই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় শোক প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী৷ প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, সরকার সকলের পাশে রয়েছে। মৃতদের পরিবার প্রতি পাঁচ লক্ষ টাকা ও জখমদের দু’লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথ৷ সেতু বিপর্যয়ের কারণ জানতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হলেও গালার কাঁটা নামছে না যোগী সরকারের৷ জনবহুল এলাকায় কোনও সুরক্ষা ছাড়াই কীভাবে দীর্ঘদিন পড়ে ছিল সেতুটি? কেন দ্রুত সেতু নির্মাণের ব্যবস্থা করা হয়নি? কেন পরীক্ষা করে দেখা হয়নি সেতুগুলির বর্তমান অবস্থা? প্রশ্ন তুলছেন গো-বলয়ের অধিকাংশ বাসিন্দা৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে