২৬ বৈশাখ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘রামনাম না করলে কবরস্থানে যান’, উসকানিমূলক গানে বিতর্কে ভোজপুরি গায়ক

Published by: Bishakha Pal |    Posted: July 26, 2019 8:58 pm|    Updated: July 27, 2019 1:51 pm

Varun Bahar's song ‘Jo Na Bole Jai Shri Ram’ goes viral

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিন কয়েক আগেই দেশে অহিষ্ণুতার বাতাবরণ তৈরি হয়েছে, এই অভিযোগ তুলে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছে প্রায় কয়েকশো বুদ্ধিজীবী। তাঁদের মধ্যে ছিলেন বাংলার অপর্ণা সেন, কৌশিক সেনের মতো ব্যক্তিত্বরাও। অপর্ণা সেন এও বলেছেন, ‘জয় শ্রীরাম’ কেউ বলবে কিনা, সেটা সম্পূর্ণ তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। কে কী বলবে, তা নিযে কাউকে জোর করা ঠিক নয়। এমন পরিস্থিতিতে ভোজপুরি গায়ক বরুণ বাহারের একটি গান ভাইরাল হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। গানটি ধর্মীয় উসকানিমূলক, এই অভিযোগ তুলে ইতিমধ্যেই অনেকে বরুণের গ্রেপ্তারির পক্ষে সরব হয়েছেন।

[ আরও পড়ুন: অস্বস্তির কাঁটা নিয়েই চতুর্থবার কর্ণাটকের মসনদে বসলেন ইয়েদুরাপ্পা ]

বরুণের গানটির প্রথম লাইনটা এইরকম- “যো না বোলে জয় শ্রীরাম, ভেজ দো উসকো কবরিস্তান”। এরপর আরও বলা হয়েছে, যারা রাম বিরোধী, তাদের কবর দেওয়া হবে। ফের হিন্দুস্তানে রামরাজ্য আসবে। এমন গানের পর খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। অনেকেই তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করেছেন অভিযোগ। সমাজকর্মী তেহসিন পুনাওয়ালা এই নিয়ে সোশ্যাল সাইটে দিল্লি পুলিশকে উদ্দেশ্য করে অভিযোগ দায়ের করার আবেদন করেন তিনি। কিন্তু গায়কের মনে হয় না তিনি কোনও ভুল করেছেন বা ধর্মীয় উসকানি দিচ্ছেন। উলটে তাঁর মতে, “আমি শ্রীরামের ভক্ত। এটা হিন্দুত্ব এবং একমাত্র এটাই হিন্দুত্ব।”

বাহার আরও বলেছেন, কখনও তাঁর গান লিখতে ১০ মিনিট লাগে, কখনও একদিন। কিন্তু এই গানটি লিখতে তার পুরো দু’দিন লেগেছে। তিনি হিন্দু পরিবারে জন্মেছেন। রামের ভক্ত। তাই এই গান তিনি গাওয়া বন্ধ করতে পারবেন না। তবে তাঁর দাবি, তিনি কোনও ধর্মকে আঘাত করেননি। তিনি শুধু তাঁর ধর্মের প্রতি ভালবাসা দেখিয়েছেন। গানটি নিজের ধর্মকে উৎসর্গ করেছেন বলেই মন্তব্য গায়কের। তিনি এও অনুরোধ করেছেন, “গানটা ভাল করে শুনুন। সেখানে বলা হয়েছে, যে রামের নাম করবে না, তাকে কবরস্তানে পাঠাও। মাত্র এক সপ্তাহ হল গানটি মুক্তি পেয়েছে। আর এর মধ্যেই দু’লক্ষের উপর মানুষ এটি পছন্দ করেছেন।” তাঁর সাফাই, যদি সত্যিই মানুষ গানটি অপছন্দ করতেন, তাহলে এত গ্রহণযোগ্য হত?

[ আরও পড়ুন: ‘ফের দুঃসাহস দেখালে পাকিস্তানের ভূগোল বদলে দেব’, হুঁশিয়ারি কারগিল বিজয়ীদের ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে