২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

খাবারের বিল নিয়ে বচসা, বার কর্মীদের মারে মৃত্যু যুবকের, ভাইরাল ভিডিও

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: May 1, 2022 5:10 pm|    Updated: May 1, 2022 5:43 pm

Viral Video of Noida Bar Fight That Left 1 Dead | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বন্ধুদের সঙ্গে বারে (Resto-Bar) গিয়েছিলেন এক যুবক। পানাহারের পর বিল নিয়ে মতানৈক্য হয় বার কর্মীদের সঙ্গে। যুবক দাবি করেন, বিল বেশি করা হয়েছে। যা মানতে চায়নি বার ম্যানেজার ও ওয়েটাররা। বচসা গড়ায় হাতাহাতিতে। তাতেই মৃত্যু হল এক যুবকের। গভীর রাতে ওই বারের হাতাহাতির সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে এসেছে। ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে আট জন বার কর্মীকে। যদিও বার মালিকের দাবি, অভিযুক্তেরা তাঁর কর্মী নন।  

ঘটনাটি নয়ডার (Noida) গার্ডেন গ্যালেরিয়া মলের একটি বারের। ওই হাতাহাতির ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে বছর তিরিশের ব্রিজেশ রাইয়ের (Brijesh Rai)। প্রকাশ্যে আসা ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, বেশ কয়েক জনের মধ্যে কোনও একটি বিষয়ে উত্তেজিত বচসা চলছে। যাঁরা বচসা করছেন তাঁদের কারও কারও একই রকম পোশাক পরা। আন্দাজ করা যায় তাঁরা ওই বারের কর্মী। বাকিদের পোশাক সাধারণ। দু’পক্ষের মধ্যে আচমকা হাতাহাতি শুরু হয়ে যায়। কয়েক সেকেন্ড পর দেখা যায় এক ব্যক্তি মারের আঘাতে মাটিতে পড়ে গিয়েছেন। তারপরেও তাঁকে মারতে থাকে অন্যরা। ওই ব্যক্তিই মৃত ব্রিজেশ কিনা তা অবশ্য স্পষ্ট নয়।

[আরও পড়ুন: ‘রাজনীতিতে ললিপপ নিয়ে আসিনি’, পীযূষ গোয়েলের সঙ্গে বৈঠকের পরেও আন্দোলনের হুমকি অর্জুনের]

পুলিশ জানিয়েছে, এদিন ব্রিজেশ তাঁর বন্ধুদের নিয়ে নয়ডার ওই বারে গিয়েছিলেন। পানাহারের পর তাঁদের বিল হয় ৭ হাজার ৪০০ টাকা। ব্রিজেশ ও তাঁর বন্ধুরা দাবি করেন, অতিরিক্ত বিল করা হয়েছে, এত টাকার পানাহার করেননি তাঁরা। যদিও সে কথা মানতে চায়নি বার ম্যানেজার ও কর্মীরা। এই নিয়েই বচসা শুরু হয় দু’পক্ষের মধ্যে। যা পরে হাতাহাতিতে গড়ায়। যে ঘটনা ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে। মনে করা হচ্ছে, ওই সময়েই মাথায় গুরুতর আঘাত লাগে ব্রিজেশের। তাতেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। ময়নাতদন্তের রিপোর্টেও একই কথা বলা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: গোরক্ষনাথ মঠে হামলায় অভিযুক্ত মুরতাজার যোগ ছিল আইসিসের সঙ্গে! প্রকাশ্যে বিস্ফোরক তথ্য]

জানা গিয়েছে, ব্রিজেশের স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। স্ত্রী পূজা একজন স্কুল শিক্ষিকা। পূজা অভিযোগ করেছেন, সময় মতো ব্রিজেশকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়নি। ফলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও বাঁচানো যায়নি। অন্যদিকে বার মালিক দাবি করেছেন, মারামারি করা যুবকরা তাঁর বারের কর্মী নন। যদিও পুলিশ ইতিমধ্যে আট জন বার কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। এক অভিযুক্ত পালতক বলেও জানা গিয়েছে। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে