BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৭  রবিবার ২৪ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ওয়েইসির খাসতালুকে থাবা বসাবে বিজেপি? হায়দরাবাদ পুরনিগমের নির্বাচনে নজর গোটা দেশের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: December 1, 2020 10:22 am|    Updated: December 1, 2020 10:22 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুরনিগমের নির্বাচন ঘিরে এত হাই প্রোফাইল নেতাদের আনাগোনা আগে দেখেনি হায়দরাবাদ। AIMIM সুপ্রিমো আসাদউদ্দিন ওয়েইসির খাসতালুকে এবারে আদাজল খেয়ে নেমেছিল বিজেপি। মাসাধিক কাল ধরে চলা প্রচারপর্বে দুই যুযুধান শিবির একে অপরকে কটাক্ষ, পালটা কটাক্ষের বহু তিরে বিদ্ধ করেছে। কখনও কটাক্ষ ছাড়িয়েছে শালিনতার মাত্রা। সেই বৃহৎ হায়দরাবাদ পুরনিগমের নির্বাচন আজ। সকাল থেকেই শান্তিপূর্ণভাবে চলছে ভোটগ্রহণ। করোনা বিধি মেনে তা চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। শেষ এক ঘন্টায় ভোট দিতে পারবেন করোনা আক্রান্তরা। ১৫০ আসনের বৃহৎ হায়দরাবাদ পুরনিগমে মোট ভোটার প্রায় ৭৪ লক্ষ।

১৫০ আসনের বৃহৎ হায়দরাবাদ পুরনিগমে গতবার তেলেঙ্গানার শাসক টিআরএস ৯৯টি এবং আসাদউদ্দিন ওয়েইসির (Asaduddin Owaisi) এআইএমআইএম ৪৪টি আসন পেয়েছিল। বিজেপি-টিডিপি জোট পেয়েছিল মাত্র ৪টি আসন। দুটি আসন গিয়েছিল কংগ্রেসের (Congress) দখলে। কিন্তু এবারে ছবি অন্য। বিজেপি প্রায় সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েছে এই পুরনিগম দখল করতে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) ছাড়া বিজেপির শীর্ষস্তরের সব নেতাই প্রচার সেরে ফেলেছেন হায়দরাবাদে। তেলেঙ্গানা রাজ্য বিজেপির সভাপতি বান্দি সঞ্জয় সিং বেশ কিছুদিন চার মিনারের শহরে ঘাঁটি গেড়ে বসে ছিলেন। বিজেপি (BJP) যুব মোর্চার সভাপতি তেজস্বী সূর্য প্রচারে গিয়ে হায়দরাবাদকে রোহিঙ্গা এবং পাকিস্তানি অনুপ্রবেশকারীদের আস্তানা বলে তোপ দেগে এসেছেন। খোদ বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা প্রচারে গিয়ে হায়দরাবাদ দখলের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাস ব্যক্ত করে এসেছেন। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ভোটে জিতলে হায়দরাবাদের নাম বদলে ফেলার ইঙ্গিত দিয়েছেন। এবং সর্বোপরি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমিত শাহ শেষবেলায় হায়দরাবাদকে ‘নিজাম সংস্কৃতি’ মুক্ত করে বিশ্বমানের আইটি হাব হিসেবে গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছেন। বিজেপির প্রায় সব শীর্ষনেতার প্রবল আক্রমনের মুখে গড় বাঁচাতে লড়তে হচ্ছে AIMIM সুপ্রিমো ওয়েইসিকে। তবে, বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আছে তেলেঙ্গানার শাসকদল টিআরএসও। তিন শিবিরের ধুন্ধুমার লড়াইয়ে কংগ্রেস প্রান্তিক শক্তি।

[আরও পড়ুন: সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে যোগাযোগ শেলা রশিদের, ঘুষ নিয়ে যোগ রাজনীতিতে! বিস্ফোরক বাবা]

এদিকে, হায়দরাবাদের ধুন্ধুমার লড়াইয়ের দিনই কাশ্মীরের জেলা উন্নয়ন পর্ষদের দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ চলছে আজ। ‌৩৭০ ধারা বাতিল করার পর এটাই উপত্যকায় প্রথম নির্বাচন। জম্মু ও কাশ্মীর ডিস্ট্রিক্ট ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিলের (District Development Council) আট দফার মধ্যে দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে মঙ্গলবার সকাল ৭টা থেকে। চলবে দুপুর দু’টো পর্যন্ত। এই পর্বে মোট ৪৩ আসনে প্রায় আট লক্ষ ভোটার ভোট দেবেন। বিশেষ মর্যাদা বাতিল হওয়ার পর এই প্রথম কোনও নির্বাচন হচ্ছে কাশ্মীরে। স্বাভাবিকভাবেই উপত্যকা তথা জম্মুতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সন্ত্রাসবাদী হামলার আশঙ্কায় মোতায়েন হয়েছে অতিরিক্ত বাহিনী। পাক সীমান্ত নজরদারি আরও বাড়ানো হয়েছে। কাশ্মীরের অন্দরেও বাড়ানো হয়েছে নাকা তল্লাশি। সব মিলিয়ে নিরাপত্তায় কোনওরকম খামতি রাখতে চায় না প্রশাসন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement