BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সিবিএসই-তে কেমন রেজাল্ট করল নেতা-মন্ত্রীদের সন্তানরা? জানাল টুইটার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 2, 2019 9:41 pm|    Updated: May 2, 2019 9:41 pm

What ministers' kids score in CBSE class 12? here is the answers

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মায়ের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে অনেক তর্কবিতর্ক আছে৷ তবে, ছেলের রেজাল্ট একেবারে তাক লাগানো৷ সিবিএসই দ্বাদশ শ্রেণির ফলপ্রকাশের পর দেখা গেল, বিদায়ী কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, মোদি মন্ত্রিসভার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য স্মৃতি ইরানির ছেলে জোহরের মার্কশিট দারুণ৷ ৯১ শতাংশ নম্বর পেয়েছে জোহর, যার মধ্যে অর্থনীতিতে পাওয়া নম্বরই ৯৪ শতাংশ৷

[আরও পড়ুন: সিবিএসই দ্বাদশের ফলাফলে ছাত্রীদের জয়জয়কার, যুগ্ম প্রথম হংসিকা-করিশ্মা]

টুইট করে ছেলের এই ফলাফল জানিয়েছেন গর্বিত মা৷ তিনি লিখেছেন, ‘জোর জোরে বলতে ইচ্ছে করছে, ছেলের জন্য আমি গর্বিত৷ ও শুধু বিশ্ব কেম্পো চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে ব্রোঞ্জ পদকই নিয়ে আসেনি৷ বারো ক্লাসের পরীক্ষাতেও দারুণ ফল করেছে৷ বিশেষত ইকনমিকসের নম্বর দুর্দান্ত৷ ক্ষমা করুন, আজ আমি শুধু একজন গর্বিত মা৷’ এমনিতেই ছেলের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক বরাবরই বেশ ভাল, বন্ধুত্বপূর্ণ৷ টুইটার ফলো করলেই মাঝেমধ্যে চোখে পড়ে, মা-ছেলের সেলফি৷ এমনই এক ছবির নিচে ক্যাপশন দিয়ে একদিন স্মৃতি লিখেছিলেন, ‘যখন ছেলে আপনার বন্ধু হয়ে ওঠে এবং আপনি তাকে সেলফির জন্য বিরক্ত করেন৷’ এতেই বোঝা গিয়েছি মাতা-পুত্রের সম্পর্কের রসায়ন৷ গত ৫ বছরে একাধিক মন্ত্রকের বদলি হওয়া স্মৃতি ইরানিকে শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রশ্নের মুখে পড়েছে বারবার৷ তা সামলেওছেন তিনি৷ আর তাই বোধহয় ছেলের সাফল্যে মা হিসেবে আরও বেশি উচ্ছ্বসিত স্মৃতি ইরানি এবং তা প্রকাশ্যে আনতে এত উদগ্রীব৷

নেতা-মন্ত্রীদের সন্তানদের মধ্যে আরও একজনের ফলাফলও উল্লেখযোগ্য৷ তিনি হলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ছেলে৷ সিবিএসই দ্বাদশে তার প্রাপ্ত নম্বর ৯৬.৪ শতাংশ৷ কেজরির স্ত্রী সুনীতা কেজরিওয়াল টুইটারে জানিয়েছেন সেকথা৷ বাবা অরবিন্দ নিজেও ছিলেন অত্যন্ত মেধাবী৷ আইআইটি খড়গপুরের ছাত্র চাকরি করতেন বেশ নামীদামি সংস্থায়৷ রাজনীতির টানে সেসব ছেড়ে চলে এসেছেন৷ ছেলেও যে বাবার সেই মেধা, পরিশ্রমের খানিকটা পাবেন, তা স্বাভাবিক৷ তাই ছেলেকে নিয়ে বাবা নিজে খুব বেশি উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেননি৷ যা করেছেন মা৷

[আরও পড়ুন: তিন দশক পর ঘরে ফিরলেন কাশ্মীরি পণ্ডিত, খুশি মুসলিম প্রতিবেশীরাও]

এবছর সিবিএসই দ্বাদশে যুগ্ম প্রথম হয়েছে গাজিয়াবাদের হংসিকা শুক্লা এবং মুজাফ্ফরবাদের করিশ্মা অরোরা৷ তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৫০০র মধ্যে ৪৯৯, মাত্র ১ নম্বর কম৷ হংসিকা অবশ্য বলছেন, ওই ১ নম্বর কম পাওয়ায় তার কোনও আক্ষেপই নেই৷ দেশের মধ্যে প্রথম হওয়াটাই সবচেয়ে প্রাপ্তির৷ এদের সকলকে শুভেচ্ছা, অভিনন্দন জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি এবং মন্ত্রিসভার অন্যান্য সদস্যরা৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে