BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চিন যে ভারতের জমি কেড়ে নিচ্ছে, সেটাও কি ঈশ্বরের দোষ?‌ ফের কেন্দ্রকে নিশানা রাহুলের

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: September 11, 2020 1:21 pm|    Updated: September 11, 2020 1:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ লাদাখ (Ladakh) সীমান্তে ভারত–চিন উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে ফের কেন্দ্রকে আক্রমণ শানালেন রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। খোঁচা দিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে। জিএসটি ক্ষতিপূরণ না দিতে পারায় তিনি যে ‘‌‌অ্যাক্ট অব গড’-এর তত্ত্ব তুলে ধরেছিলেন, সেই প্রসঙ্গেই এদিন অর্থমন্ত্রীকে বিঁধলেন প্রাক্তন কংগ্রেস (Congress) সভাপতি তথা কংগ্রেস সাংসদ। রাহুলের প্রশ্ন, ভারত কবে চিনের কাছ থেকে নিজের জমি ফেরত নেবে?‌ নাকি এক্ষেত্রেও ভগবানের দোহাই দেওয়া হবে?‌

নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে রাহুল লেখেন, ‘‌‘‌চিনারা আমাদের জমি জবরদখল করেছে। কেন্দ্রীয় সরকার কবে তা ফেরত নেওয়ার কথা ভাবছে?‌ নাকি এটাও ভগবানের কীর্তি বা অ্যাক্ট অব গড আখ্যা দেওয়া হবে?‌’‌’ 

 

[আরও পড়ুন:‌ কাশ্মীরে বড়সড় সাফল্য সেনার, কুপওয়ারা থেকে প্রচুর অস্ত্র-সহ গ্রেপ্তার দুই জইশ জঙ্গি]

এদিকে, বিগত এক সপ্তাহ ধরে প্যাংগং হ্রদের (Pangong Tso) দক্ষিণ পাড়ে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ভারত ও চিনের ফৌজ। গত মার্চ মাস থেকেই প্যাংগং হ্রদের উত্তর পাড়ে আগ্রাসন চালিয়ে আসছিল চিনা বাহিনী। ১৫ জুনের সংঘর্ষের পর দুই দেশের মধ্যে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে বেশ কয়েক দফা আলোচনা হলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি। প্রতিবারই ভারতের সঙ্গে বেইমানি করেছে লালফৌজ। বৈঠকের টেবিলে একরকম কথা আর বাস্তবে অন্যরকম কাজ, এটাই নীতি হয়ে দাঁড়িয়েছে চিনা বাহিনীর। এর মধ্যে আবার গত ২৯ এবং ৩০ আগস্ট চিনারা দক্ষিণ দিক থেকে ভারতীয় সীমান্তে ঢোকার চেষ্টা করেছিল। যা ভারত প্রতিহত করেছে। এই মুহূর্তে প্যাংগংয়ের দক্ষিণ উপকূলে ভারত রয়েছে অ্যাডভান্টেজে আর চিনারা উত্তর উপকূল দিয়ে হামলার ছক কষছে। সেজন্য রীতিমতো প্রস্তুতিও নিয়ে ফেলেছে চিনা সেনা। সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে লাদাখ সীমান্তে প্রায় ৫০ হাজার লালফৌজ (PLA) মোতায়েন আছে। সেই সঙ্গে রয়েছে ট্যাঙ্ক, সাঁজোয়া গাড়ি-সহ যাবতীয় আধুনিক সমরসজ্জা। যা রীতিমতো চিন্তার বিষয় হলেও, ভারতীয় সেনা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত।

[আরও পড়ুন:‌ খুনের দায়ে শাস্তি দুই ভাইয়ের, ৭ মাস পর ফিরে এলেন সেই ‘মৃত’ ব্যক্তিই! তাজ্জব কাণ্ড গুজরাটে]

এই অবস্থায় লাদাখ সীমান্তে কর্তব্যরত কম্যান্ডারদের বিশেষ নির্দেশ পাঠিয়েছে ভারতীয় সেনা (Indian Army)। ওই নির্দেশে বলা হয়েছে, নিয়মের মধ্যে থেকেই দেশের সীমানা পাহারা দিতে হবে। শত্রুর হাত থেকে দেশের মাটি যেকোনও মূল্যে বাঁচাতে হবে। তবে অশান্তি মেটাতে খুব শীঘ্রই সেনাস্তরেও দু’‌দেশের মধ্যে কথাবার্তা হবে। এদিকে, এদিন লাদাখ সীমান্তের পরিস্থিতির পর্যালোচনা করতে তিন সেনাপ্রধান এবং চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াতের সঙ্গে বৈঠকও সারেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (Rajnath Singh)।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement