BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিপাকে অনিল আম্বানি, রিলায়্যান্স গ্রুপের সদর দপ্তর অধিগ্রহণ করল ইয়েস ব্যাংক

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 30, 2020 9:44 pm|    Updated: July 30, 2020 9:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঋণখেলাপি অনিল আম্বানির সংস্থার মুম্বইয়ের সদর দপ্তর অধিগ্রহণ করল ইয়েস ব্যাংক। সংবাদপত্রে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ২ হাজার ৮৯২ কোটি টাকার ঋণ নিয়ে তা সময়মতো ফেরত দেননি অনিল। তাই এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। এছাড়া, দক্ষিণ মুম্বইয়ে ‘Reliance Infrastructure’-এর কর্ণধার অনিল আম্বানির দু’টি ফ্ল্যাটও অধিগ্রহণ করেছে ইয়েস ব্যাংক।

[আরও পড়ুন: ভারতীয় রাজনীতিতে ‘তেহেলকা’, দুর্নীতি মামলায় জেলের সাজা জয়া জেটলির]

অনিল আম্বানির সংস্থা ‘Anil Dhirubhai Ambani Group’ (ADAG) বা রিলায়্যান্স গ্রুপ পরিচালিত ‘Reliance Infrastructure’-এর সদর দপ্তরটি দক্ষিণ মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ এলাকার রিলায়্যান্স সেন্টারে। এর আয়তন প্রায় ২১ হাজার ৪৩২ বর্গমিটার। ইয়েস ব্যাংক কর্তৃপক্ষের তরফে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, গত মে মাসের ৬ তারিখ ঋণ মেটানোর দাবি জানিয়ে অনিলের সংস্থাকে নোটিস পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু দু’মাসের মধ্যেও ঋণ না মিটিয়ে শর্তের খেলাপ করায় সংস্থার তিনটি সম্পত্তির দখল নেওয়া হয়েছে। উক্ত সম্পত্তি সংক্রান্ত কোনও ব্যবসায়িক লেনদেন না করার জন্যও জনসাধারণকে আবেদন জানানো হয়েছে। এর অন্যথায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। প্রসঙ্গত, গত জুন মাসের ২৩ তারিক অনিল আম্বানি ঘোষণা করেছিলেন যে, চলতি আর্থিক বর্ষেই প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকার ঋণের হাত থেকে মুক্তি পাবে ‘Reliance Infrastructure’।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ইয়েস ব্যাংক কেলেঙ্কারির মামলায় নাম জড়ায় অনিল আম্বানির। আর্থিক দুর্নীতির একটি মামলায় রিলায়েন্স গ্রুপের চেয়ারম্যানকে তলবও করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। আর্থিক সংকটে পড়া ইয়েস ব্যাংকের কাছ থেকে যে সব বড় কর্পোরেট সংস্থা মোটা অঙ্কের ঋণ নিয়েছে, তাদের মধ্যে অন্যতম অনিল আম্বানির সংস্থা। ইয়েস ব্যাংকের কাছ থেকে ১২ হাজার ৮০০ কোটি টাকার ঋণ নেয় তাঁর সংস্থা। তবে সময়মতো সেই ঋণ মেটায়নি আম্বানির সংস্থা বলেই খবর। অনিল আম্বানির সংস্থা ছাড়াও ইয়েস ব্যাংকের কাছ থেকে ঋণ নিয়েছে ভোডাফোন, এসেল, আইএলএফএস, ডিএইচএফএল। গত ৬ মার্চ সাংবাদিক বৈঠক করে এই কথা জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ।  

[আরও পড়ুন: সংঘাত মেটার ইঙ্গিত! মুকুল রায়ের দিল্লির বাড়ির বাইরে ফিরল মোদি-শাহের ব্যানার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement