BREAKING NEWS

১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অযোধ্যা-মথুরায় মন্দিরের দশ কিলোমিটারের মধ্যে থাকবে না মদের দোকান, ঘোষণা যোগী সরকারের

Published by: Suparna Majumder |    Posted: June 2, 2022 2:37 pm|    Updated: June 2, 2022 2:37 pm

Yogi Adityanath orders to close liquor shops at Ayodhya and Mathura | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মন্দিরের কাছাকাছি রাখা যাবে না মদের দোকান, এমনই নির্দেশ দিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath)। অযোধ্যা এবং মথুরার মন্দির সংলগ্ন এলাকায় এই নির্দেশ জারি করা হয়েছে। গতকাল থেকেই কার্যকর করা হয়েছে এই নির্দেশিকা। ওই অঞ্চলের সমস্ত মদের দোকানের লাইসেন্স বাতিল করে দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। তার বদলে মথুরায় দুধের ব্যবসা বাড়াতে বলেছেন যোগী।

অযোধ্যায় রাম মন্দির (Ayodhya Ram Temple) সংলগ্ন অঞ্চলে বন্ধ করা হয়েছে মদের ব্যবসা। মূলত সাধুদের দাবিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরেই মন্দির এলাকায় মাংস বিক্রি করতে অনুরোধ জানিয়েছিলেন সাধুদের একাংশ। সেই সঙ্গে মদের দোকানগুলিও বন্ধ হোক, সেই দাবি করা হয়েছিল। সেই দাবি মেনেই সরকারের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়, মন্দির থেকে ১০ কিলোমিটার দূরত্বে কোনও নেশার দ্রব্য বিক্রি করা যাবে না। প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মথুরা-বৃন্দাবন এলাকাকে ‘পবিত্র তীর্থস্থান’ বলে ঘোষণা করে উত্তরপ্রদেশ সরকার। তারপরেই ওই অঞ্চলে মাংস এবং মদ বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়।

[আরও পড়ুন: ‘মোদির ছোট সৈনিক হয়ে কাজ করব’, বিজেপিতে নাম লিখিয়ে বললেন হার্দিক প্যাটেল]

মথুরা (Mathura) জেলার আবগারি দপ্তরের প্রধান প্রভাত চন্দ্র জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি দোকান (Liquor Shop) বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে রাজস্ব আদায়ে ঘাটতি হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। বার্ষিক প্রায় ৪০ কোটি টাকা রাজস্ব কমবে, বলেছেন প্রভাত। মথুরায় মন্দির এলাকায় এক বিয়ার ব্যবসায়ী বলেছেন, মে মাসেই নতুন দোকানের জন্য লাইসেন্স নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেই সময়ে তাঁকে জানানো হয়নি যে একমাসের মধ্যে দোকানের লাইসেন্স বাতিল করে দেওয়া হতে পারে। আরেক ব্যবসায়ীও বলেছেন, এপ্রিল মাসে লাইসেন্স নবীকরণ করিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তিনিও জানতেন না যে লাইসেন্স বাতিল হতে পারে। আপাতত তাঁদের দোকানে মজুত করা জিনিস নিয়ে কী করবেন, সেই নিয়ে ভাবিত তাঁরা।

এই ধরনের সমস্যা প্রসঙ্গে প্রভাত জানিয়েছেন, “লাইসেন্স ফি বাবদ যে টাকা নেওয়া হয়েছে তা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে। মৌখিক ভাবে সব ব্যবসায়ীদের জানানো হয়েছিল খুব বেশি পরিমাণে মজুত না করতে। কারণ যেকোনো সময়ে সরকারের নির্দেশ আসতে পারে। যে দোকানে মদ পাওয়া যাবে সেই দোকান সিল করে দেওয়া হবে।” প্রসঙ্গত, মার্চ মাসেই লটারি করে মদের দোকানের মালিকানা দেওয়া হয়েছিল আগ্রহী ব্যবসায়ীদের। সেই সমস্ত দোকানও বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরে জেহাদিদের হাতে খুন রাজস্থানের ব্যাংক ম্যানেজার, শোপিয়ানে বিস্ফোরণে আহত তিন সেনা

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে