২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অযোধ্যায় মসজিদের শিলান্যাসেও যাবেন? জবাব দিলেন যোগী আদিত্যনাথ

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 6, 2020 12:44 pm|    Updated: August 6, 2020 12:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাম মন্দিরের শিলান্যাস অনুষ্ঠানে তাঁকে শুরু থেকেই দেখা গিয়েছে অগ্রণী ভূমিকায়। সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুসারে শিলান্যাস থেকে শুরু করে মন্দির নির্মাণ, সবটাই হওয়ার কথা রামজন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্টের নেতৃত্বে। কিন্তু বুধবারের শিলান্যাসের অনুষ্ঠানে দেখা গেল ট্রাস্টের সদস্য না হওয়া সত্বেও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীই সবটার তদারকি করছেন। অতিথিদের আপ্যায়ন থেকে শুরু করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখা, সবসময় ব্যতিব্যস্ত থেকেছেন যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath)। রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান হিসেবে সেটা তিনি করতেই পারেন। কিন্তু এখন প্রশ্ন হল মসজিদের শিলান্যাসের সময়ও কি একইরকমের তৎপরতা দেখাবেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী? যার উত্তরে যোগীর সাফ কথা, মসজিদের শিলান্যাসে তাঁকে ডাকা হবে না। আর তিনি যাবেনও না। 

বুধবার মন্দিরের শিলান্যাস অনুষ্ঠান মিটে যাওয়ার পর এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সেখানেই তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, মন্দিরের শিলান্যাসে তিনি যেভাবে সক্রিয় ভূমিকা নিলেন, তেমনভাবে মসজিদের শিলান্যাসে তিনি যাবেন কিনা? প্রশ্ন শুনেই বদলে যায় যোগীর হাবভাব। সাফ বলে দেন,”আমার মনে হয় ওই অনুষ্ঠানে আমাকে আমন্ত্রণ জানানো হবে না। আর আমি ওখানে যাবও না। মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে আমার যা যা করা উচিত সব করব। তবে ওখানে যাব না।” উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী বলছেন, “আমি যদি ওখানে যায় তাহলে অনেকেরই অনেকরকম দোকান বন্ধ হয়ে যাবে।”

[আরও পড়ুন: এই পরিস্থিতিতে রাম মন্দির নির্মাণকে সমর্থন কেন? কংগ্রেসকে তুলোধোনা বিজয়নের]

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী, অযোধ্যায় বিতর্কিত যে জমিতে রাম মন্দির (Ram Mandir) নির্মিত হচ্ছে, তাঁর দ্বিগুণ জমি মুসলিম পক্ষকে দেবে সরকার। সেই জমিতে নির্মিত হবে বাবরির বিকল্প মসজিদ। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড (Sunni Central Waqf Board) ইতিমধ্যেই সরকারের দেওয়া জমি গ্রহণ করেছে এবং সেখানে মসজিদ নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু করেছে। তবে, ওই জমিতে যে শুধু মসজিদ নির্মাণ হবে তা না, তার পাশাপাশি একটি হাসপাতাল এবং পাঠাগার তৈরি করা হবে বলেও জানিয়েছে সুন্নি বোর্ড। রাম মন্দিরের শিলান্যাসের পরই তোড়জোড় চলছে মসজিদের শিলান্যাসেরও।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement