৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

চেন্নাই: ১৩১-৪ (রায়ডু ৪২, ধোনি ৩৭)

মুম্বই: ১৩২-৪ (সূর্যকুমার ৭১, ঈশান কিষণ ২৮)

মুম্বই ৬ উইকেটে জয়ী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: খাতায় কলমে এটাই ছিল আইপিএলের সবচেয়ে হেভিওয়েট যুদ্ধ। সাফল্যের বিচারে আইপিএলের দুই সেরা দলের লড়াই, তাও আবার প্লে-অফে। কিন্তু, সমর্থকরা যে লড়াইটা প্রত্যাশা করছিলেন, তা দিতে পারলেন না ধোনিরা। নিজেদের ঘরের মাঠে নিজেদের অস্ত্রেই ঘায়েল হল চেন্নাই। ঘূর্ণির চক্রব্যুহে পড়ে নড়তেই পারল না সিএসকের টপ-অর্ডার। শেষ বেলায় ধোনি-ধামাকায় কোনওরকমে সম্মানজনক স্কোর খাড়া করল তাঁরা। সূর্যকুমার যাদবের অনবদ্য ইনিংসের সুবাদে চেন্নাইয়ের দেওয়া ১৩২ রানের লক্ষ্যমাত্রাই সহজেই পৌঁছে গেল মুম্বই। ৬ উইকেটের জয় দিয়ে পঞ্চমবারের জন্য ফাইনালে পৌঁছালেন রোহিতরা।

[আরও পড়ুন: হিটম্যানের ম্যাজিকে আইপিএল থেকে ভ্যানিশ কেকেআর, প্রশ্নের মুখে কার্তিকের নেতৃত্ব]

টস জিতে নিজের চেনা ছকেই খেলতে চেয়েছিলেন ধোনি। প্রথমে ব্যাট করে দেড়শোর আশেপাশে রান করা, তারপর বিপক্ষকে ঘূর্ণির জালে ফাঁসিয়ে দেওয়া। কিন্তু, এদিন তেমনটা হল না। নিজেদের স্পিনের জালে জড়িয়ে গেল চেন্নাইয়েরই টপ-অর্ডার। রাহুল চাহার, ক্রুণাল পাণ্ডিয়া এবং জয়ন্ত যাদবের স্পিন ত্রয়ী দ্রুতগতিতে রান তুলতে দিল না চেন্নাইকে। এই তিন স্পিনারই চেন্নাইয়ে চারটি উইকেট তুলে নেন। শেষদিকে ধোনি এবং রায়ডু দ্রুতগতিতে রান তোলায় কোনওক্রমে  ১৩১ রানের সম্মানজনক স্কোরে পৌঁছায় সিএসকে। ধোনি ২৯ বলে ৩৭ এবং রায়ডু ৩৭ বলে ৪২ রান করেন।

[আরও পড়ুন: আইপিএলের পর বিশ্বকাপেও অনিশ্চিত হয়ে পড়লেন টিম ইন্ডিয়ার এই ক্রিকেটার]

১৩২ রানের ছোট টার্গেট নিয়ে নেমেও শুরুটা বিশ্রীভাবে করে মুম্বই। মাত্র ৪ রানের মাথায় আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক রোহিত। গোটা টুর্নামেন্টেই খারাপ ফর্মে রয়েছেন তিনি। ২১ রানের মাথায় খোয়াতে হয় ডি’ককের উইকেটও। তবে, এরপর ইনিংসের হাল ধরেন ঈশান কিষণ এবং সূর্যকুমার যাদব। কিষণ ২৮ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরলেও ম্যাচের শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন সূর্য। তাঁর সংগ্রহ ৭১ রান । প্রথম কোয়ালিফায়ারে জয় পাওয়ায় সরাসরি ফাইনালের টিকিট পেয়ে গেল মুম্বই। অন্যদিকে, চেন্নাই আগামী ১০ মে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার খেলবে। দিল্লি এবং হায়দরাবাদ ম্যাচে জয়ী দলের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং