১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

শহরে বাড়ছে সোয়াইন ফ্লু’র দাপট, এখনও পর্যন্ত আক্রান্ত ২৫

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 22, 2017 3:43 am|    Updated: October 7, 2019 6:52 pm

25 fresh cases of swine flu reported in Kolkata

স্টাফ রিপোর্টার: ডালপালা ছড়াচ্ছে সোয়াইন ফ্লু৷ জানুয়ারি থেকে এখনও পর্যন্ত রাজ্যের ২৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন এই রোগে৷ তবে প্রকোপ বেড়েছে এপ্রিলের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই৷ গত দু’দিনে ১১ জন এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন৷ শুক্রবার স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে। রেহাই মেলেনি শিশুদেরও৷ শরীরে H1N1 ভাইরাস নিয়ে পার্ক সার্কাসের একটি বেসরকারি শিশু হাসপাতালে ভর্তি ১০ মাসের এক শিশু৷ মুকুন্দপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে সাড়ে তিন বছরের এক শিশু৷ অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ ভেন্টিলেশনে রয়েছে৷ কলকাতার কাদাপাড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালেও ভর্তি রয়েছেন সোয়াইন ফ্লু আক্রান্ত ৯ জন রোগী৷ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় হাসপাতাল ও রোগীদের নাম গোপন রাখা হয়েছে৷ পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা৷ তাঁদের মত, প্রতি বছরই সোয়াইন ফ্লু ভাইরাস জিনগত অভিযোজন ঘটিয়ে নতুন অবতারে আবির্ভূত হয়৷ এবছর কতটা শক্তি নিয়ে এসেছে তা সময়ই বলবে৷ তবে প্রস্তুতি সেরে না রাখলে বিপদ৷

[শৌচালয় তৈরির শপথ পূরণ করে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন গ্রাম সেবক]

রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডা. বিশ্বরঞ্জন শতপথী অবশ্য জানিয়েছেন, সোয়াইন ফ্লু নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই৷ একটা-দু’টো করে ‘কেস’ বছরভর আসেই৷ জানুয়ারি থেকে এখনও পর্যন্ত মোট ২৫ জন আক্রান্ত হয়েছে৷ স্বাস্থ্য দপ্তর তৈরি৷ ট্যামি ফ্লু-র জোগানও পর্যাপ্ত রয়েছে৷ প্রস্তুতি সেরে রেখেছে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা. উচ্ছল ভদ্র৷ কমিউনিটি মেডিসিনের এই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জানালেন, “এখন একটি রোগীও সোয়াইন ফ্লু-র উপসর্গ নিয়ে ভর্তি নেই৷ গত বছরও আমরা হাসপাতালের সবাইকে সোয়াইন ফ্লু-র প্রতিষেধক দিয়েছি৷ এ বছরও দেব৷ যে কোনও পরিস্থিতি সামাল দিতে আমরা প্রস্তুত৷”

[আসছে স্কাই-ট্যাক্সি, এবার যানজট ছাড়াই পৌঁছন গন্তব্যে]

বুধবারই সোয়াইন ফ্লু-র খবর চাউর হতেই আতঙ্ক ছড়ায় কলকাতায়৷ কয়েক বছর আগে কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোয় কার্যত মহামারীর চেহারা নিয়েছিল এই রোগ৷ তারপর থেকেই আতঙ্কটা তাড়া করছে নগরবাসীকে৷ প্রশ্ন উঠেছে, শহরের বেসরকারি হাসপাতালগুলি কি তৈরি এই রোগের মোকাবিলায়? বিশিষ্ট শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অপূর্ব ঘোষ জানালেন, “আমাদের পার্ক সার্কাসের হাসপাতালে ১০ মাসের একটি শিশু ভর্তি রয়েছে৷ শিশুটি প্রথমে সঙ্কটজনক ছিল৷ কিন্তু এখন ঠিক আছে৷ আমাদের পরিকাঠামো রয়েছে৷” অপূর্ববাবু এই রোগ নিয়ে অভিভাবকদের আগেভাগে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন৷ জানিয়েছেন, “বাইরে থেকে ‘সোয়াইন ফ্লু’ আর পাঁচটা ভাইরাল জ্বরের মতোই৷ চিকিৎসক ছাড়া অন্য কারও পক্ষে খালি চোখে ধরা মুশকিল৷ তবে ভীষণ ছোঁয়াচে৷ সেটাই সমস্যা৷ তাই ভাইরাল জ্বর হলে ডাক্তারের পরামর্শ মেনে দ্রুত H1N1 পরীক্ষা করিয়ে নেওয়া ভাল৷কাদাপাড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে সোয়াইন ফ্লু-র উপসর্গ নিয়ে ন’জন রোগী ভর্তি রয়েছেন৷ সেখানকার এক চিকিৎসক জানালেন, সোয়াইন ফ্লু-র জন্য কোনও আইসোলেশন ওয়ার্ড এখনও তৈরি করা হয়নি৷ রোগীর চাপ বাড়লে হয়তো হবে৷ ফলে, আতঙ্ক তৈরি হয়েছে রোগীর পরিজনদের মধ্যে৷

[ব্রহ্মসের ল্যান্ড অ্যাটাক ভারসনের সফল উৎক্ষেপণ করল নৌসেনা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে