১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ৩০ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কলকাতায় ‘লেডিজ গ্যাংয়ের’ দাপট, প্রকাশ্যে যুবকের নগদ-মোবাইল ছিনতাই যৌন কর্মীদের

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 29, 2020 8:30 pm|    Updated: October 29, 2020 10:03 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: করোনা আবহে যৌনপল্লিতে রোজগার কম। তাই দিনদুপুরে অতিরিক্ত রোজগারের জন্য রীতিমতো তোলাবাজি ও ছিনতাইয়ে নেমে পড়েছিল সোনাগাছির যৌনপল্লির বাসিন্দা চার যুবতী। উল্টোডাঙার ফুট ব্রিজের উপর এক যুবকের কাছ থেকে মোবাইল ও টাকা ‘ছিনতাই’য়ের অভিযোগ মহিলা গ্যাংয়ের ওই চার সদস্যের বিরুদ্ধে। এমনকী, তাঁকে একটি এটিএমে নিয়ে গিয়ে তোলাবাজির চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ। শেষ পর্যন্ত এটিএমের সিসিটিভির ফুটেজের সূত্র ধরেই পুলিশ তদন্ত শুরু করে।

উত্তর কলকাতার বড়তলা থানা এলাকার সোনাগাছি থেকে চার যুবতী রিঙ্কু বিশ্বাস, ঝরনা সরকার, সুন্দরী দাস ও ঝরনা সাহাকে মানিকতলা থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে লুঠপাট করা জিনিসগুলি। পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ উল্টোডাঙা ফুট ব্রিজের উপর অপেক্ষা করেছিল ওই চার যুবতী। রাস্তা পার হওয়ার জন্য ওই নির্জন ফুট ব্রিজের উপর দিয়েই হাঁটছিলেন অভিযোগকারী যুবক। ব্রিজ থেকে নামার আগেই তাঁকে ঘিরে ধরে ওই চার যুবতী। তাঁর কাছে যা আছে, তা দিয়ে দিতে বলে। যুবক দিতে নারাজ। অভিযোগ, প্রথমে তাকে মারধর করার হুমকি দেয় ওই চারজন।

[আরও পড়ুন : নথি যাচাই ছাড়াই অনলাইনে কলেজে ভরতি, মার্কশিটে গরমিল পেলে রেজিস্ট্রেশন বাতিল করবে CU]

এরপর বলে, তারা চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করবে। পথচারীদের বলবে, ওই যুবক তাদের শ্লীলতাহানি করেছে। কান্নাকাটি করে এমন অভিনয় করবে, যাতে পথচারীরা তাঁকে গণধোলাই দেন। পুলিশের কাছে গিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়। এসব শুনে যুবক একটু ঘাবড়ে যান। কী করবেন তা বুঝে ওঠার আগেই যুবতীরা তাঁর উপর চড়াও হয়। তাঁর কাছ থেকে দুটি দামী মোবাইল, ব্লুটুথ হেডফোন, ও মানিব্যাগ থেকে তিন হাজার টাকা ছিনতাই করে। ওই সময় তারা যে সোনাগাছির বাসিন্দা, তাও জানিয়ে দেয়। যুবকের মানিব্যাগে এটিএম কার্ডও ছিল। এর পর ওই যুবতীরা তাঁকে ভয় দেখিয়ে কাছেই একটি এটিএমে নিয়ে যায়। সেখান থেকে টাকা তোলার জন্য জোরজুলুম করতে থাকে। যে ব্যাংকের এটিএম কার্ড তাঁর কাছে ছিল, তাতে বিশেষ টাকা ছিল না। তাই তিনি টাকা তুলতে পারেননি। এর পর তাঁকে ছেড়ে দিয়ে চার যুবতী এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়।

[আরও পড়ুন : পরকীয়ায় জড়িয়েছে স্ত্রী! স্রেফ সন্দেহে খাস কলকাতায় মহিলাকে গুলি করে খুনের চেষ্টা স্বামীর]

যুবক রাস্তায় কর্তব্যরত পুলিশকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে মানিকতলা থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তোলাবাজির মামলা দায়ের হয়। ওই এটিএমের সিসিটিভির ফুটেজের সূত্র ধরে চারজনের ছবি হাতে পান মানিকতলা থানার পুলিশ আধিকারিকরা। সেই ছবি নিয়ে তাঁরা সারারাত ধরে বড়তলার সোনাগাছি ও গিরীশ পার্কের রামবাগান এলাকায় তল্লাশি চালান। এদিন ভোররাতেই চারজন মহিলাকেই শনাক্ত করে পুলিশ। সকালে বাড়িতে হানা দিয়ে চার যুবতীকেই পুলিশ গ্রেপ্তার করে। উদ্ধার হয় টাকা ও মোবাইল। এর আগে তারা অন্য কোথাও লুঠপাট করেছে কি না, তা জানতে অভিযুক্ত চারজনকেই জেরা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement