১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ওভারটেক না করতে দেওয়ায় বাসচালককে মারল অটোচালকেরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 6, 2016 4:23 pm|    Updated: October 6, 2016 4:39 pm

A bus driver was beaten up by autorickshaw pullers in Kolkata

স্টাফ রিপোর্টার: শহরে পুজোর মুখে ফের অটো দৌরাত্ম্য৷ বৃহস্পতিবার রুট পারমিটহীন কিছু অবৈধ অটোর চালকের হামলার শিকার হলেন বাসচালক৷ যাত্রীবোঝাই বাসটি একটি অটোকে ওভারটেক না করতে দেওয়ায় মাশুল গুনতে হল। রাজারহাটের খড়িবাড়ি থেকে আহিরীটোলার ২১১ রুটের বাসকে পরে ওভারটেক করে এসে ঘিরে ধরে চলল অটোচালকদের তাণ্ডব৷ অবৈধ রুটের অন্তত চার-পাঁচটি অটোর চালকের বিরু‌দ্ধে অভিযোগ উঠেছে৷

লেকটাউন ফুটব্রিজের কাছে ভিআইপি রোডের উপর রাস্তা আটকে যাত্রীবোঝাই ভিড় বাসেই চলল ইটবৃষ্টি৷ সঙ্গে রাস্তা থেকে কাঠ তুলে নিয়ে বেধড়ক মারধর করা হল বাসের চালক ও কন্ডাক্টরকে৷ তারপর চলল বাস ভাঙচুর৷

ঘটনায় আহত একাধিক যাত্রী৷ সেই অবস্থায় বাসের চালককে উদ্ধার করতে গেলে যাত্রীদের কপালেও জোটে মার৷

যদিও লেকটাউন ট্রাফিক গার্ডের সামনেই এই ঘটনা ঘটায় দ্রুত পুলিশ হস্তক্ষেপ করে৷ এবং অটো চালকদের প্রত্যেককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ মূল অভিযুক্ত অবৈধ অটোটিকেও আটক করা হয়েছে৷

একদিকে পঞ্চমীর সকালে পুজোর প্রথম দিনের ভিড়, তাতে বেসরকারি অফিসের শেষ মুহূর্তের চাপ৷ সঙ্গে পুজোর কেনাকাটার শেষ মুহূর্তের তাড়াহুড়ো৷ ফলে দ্রুত কাজ চলছে ভিআইপি রোড সম্প্রসারণের৷ সঙ্গে বাঙুরে ভিআইপি রোডের উপরেই তৈরি হচ্ছে সাবওয়ে৷ এই পরিস্থিতিতেই বাইপাসে ওঠার উল্টোডাঙা ফ্লাইওভারের দিকের মুখে এদিন সকাল থেকেই বসানো হচ্ছে নতুন গার্ডরেল৷ যার ফলে উল্টোডাঙাতেও চাপ ছিল বেশি৷ যার জেরে তেঘরিয়া পর্যন্ত যানজট ছড়িয়ে ছিল৷ সেই পরিস্থিতি সামাল দিতে সকাল থেকেই রাস্তায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়৷ বাসও চলছিল ধীরগতিতে৷ পুলিশ জানাচ্ছে, অন্য বাসের মতো একইভাবে রাস্তার বাঁদিক ঘেঁষে যাচ্ছিল আক্রান্ত বাসটি৷

সেটিকে দীর্ঘক্ষণ ওভারটেক করতে চাইছিল বেশ কিছু অটো৷ কিন্তু তাদের যাওয়ার জায়গা দিতে পারেনি বাসটি৷ শেষে লেকটাউন ফুটব্রিজের কাছে একটি জায়গায় দাঁড়াতেই সামনের একটি অটোর সঙ্গে ঠোকা লেগে যায়৷ এর পরই পিছনের অবৈধ অটোটির চালক বাকি সঙ্গীদের সঙ্গে নিয়ে চড়াও হয় বাসচালকের উপর৷ শুরু হয় বেধড়ক মারধর৷

ইতিমধ্যে অটোগুলির ড্রাইভিং লাইসেন্স, ও মূল পারমিট কোন রুটের সেই সব তথ্য খতিয়ে দেখতে শুরু করেছে পুলিশ৷ ঘটনায় ব্যস্ত সময়ে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে ভিআইপি রোড৷ সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে৷ বাস থেকে নেমে পালাতে শুরু করেন যাত্রীরা৷ শেষ পর্যন্ত অতিরিক্ত পুলিশবাহিনী মোতায়েন করে দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার কাজ শুরু করে পুলিশ৷

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে