২৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বুধবার ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

কলহার মুখোপাধ্যায়, বিধাননগর: দুপুরে বাবা-মায়ের হাত ধরে প্রমোদ উদ্যানে বেড়াতে এসেছিল চার বছরের খুদে। আচমকা নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। দিনভর খোঁজাখুঁজির পর রাতে উদ্যানের জলাশয় থেকে উদ্ধার হল তার নিথর দেহ। শনিবার মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে নিউটাউনের ইকো পার্কে।

মৃত বালকের নাম শেখ আবেজ। বাবার নাম শেখ আকবর। বাড়ি তালতলা থানা এলাকার ৬৯ তালতলা রোডে। নিউটাউন থানা একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করে তদন্তে নেমেছে। তদন্তকারীদের প্রাথমিক অনুমান, অভিভাবদের অসাবধানতাবশত বাচ্চাটি কোনওভাবে তাঁদের হাতছুট হয়। তারপর জলাশয়ে পড়ে যায়। কিন্তু পার্কের কোনও রক্ষীর নজরে ঘটনাটি নজরে পড়ল না কেন সে প্রশ্ন বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। বছরখানেক আগে এই ইকো পার্কেই বড় ধরনের বিপর্যয়ে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছিলেন। জয় রাইডের বিভ্রাটের কারণে সে দুর্ঘটনা ঘটেছিল। তারপরে এদিনের ঘটনার পর সার্বিক নিরাপত্তা পরিকাঠামো নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

[আরও পড়ুন: কুয়াশার জেরে দুর্ঘটনা এড়াতে বিলম্বে চলবে ট্রেন, যাত্রীদের সতর্ক করল রেল]

শনিবার দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বিকেল ৩.৪০ নাগাদ। তার ঘণ্টাখানেক আগে দ্বিতীয়ার্ধে আবেজের মা ও তাদের দুই প্রতিবেশী ইকো পার্কে বেড়াতে আসেন। খানিকক্ষণ ঘোরাঘুরির পর খেতে বসেন। আবেজ দৌড়ে খেলে বেড়াচ্ছিল। ঠিক আধঘণ্টার মাথায় চোখের আড়াল হয়ে যায় শিশুটি। কাছাকাছির মধ্যে খোঁজাখুঁজির পর তাকে না পেয়ে ইকো পার্কের নিরাপত্তারক্ষীকে খবর দেন মা। রক্ষীরা ওয়াকিটকি মারফত প্রতিটি গেটে খবর পৌঁছে দেন। খবর দেওয়া হয় ইকো পার্ক কর্তৃপক্ষকে। তার পরও শিশুটিকে না পেয়ে নিউটাউন থানায় খবর দেওয়া হয়। পুলিশ আসার পর বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ ডুবুরি নামিয়ে জলাশয়গুলিতে তল্লাশি চালানো শুরু করে পুলিশ। প্রায় তিন ঘণ্টা একানাগাড়ে খোঁজাখুঁজি চালানোর পর চার নম্বর গেটের কাছে চিলড্রেন পার্ক সংলগ্ন জলাশয় থেকে শিশুটির প্রাণহীন দেহ উদ্ধার করেন ডুবুরিরা। শিশুটির দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। অভিভাবক-সহ গোটা তালতলা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং