২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ: কলকাতার একটি সংস্থার থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে নিয়ে বিদেশে গা ঢাকা দেওয়ার প্রচেষ্টা চালিয়েছিল। টাকার অঙ্কও নেহাত কম নয়! ৩১ লক্ষ ডলার। তক্কে তক্কে ছিল পুলিশ। মুম্বই বিমানবন্দরে পা রাখতেই ধরা পড়ে যায় ওই ব্যক্তি। অভিযুক্তের নাম মধুসূদন তাপাড়িয়া। 

পুলিশ সূত্রে খবর, ৩১ লক্ষাধিক ডলার হাতিয়ে বিদেশে পালাচ্ছিল অভিযুক্ত। লুক আউট নোটিসের ভিত্তিতে মুম্বই বিমানবন্দর থেকে মধুসূদন তাপাড়িয়া নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করলেন কালীঘাট থানার পুলিশ আধিকারিকরা। পুলিশ আরও জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন দক্ষিণ কলকাতার শম্ভুনাথ পন্ডিত স্ট্রিটের একটি বেসরকারি সংস্থার কর্ণধার। তাঁর অভিযোগ অনুযায়ী, অভিযুক্ত মধুসূদন ওই সংস্থারই কর্মী ছিল। বিভিন্নভাবে সে সংস্থাকে প্রতারণা করতে শুরু করে। তিন বছর আগে মহারাষ্ট্রের থানের ওই বাসিন্দা সংস্থার অ্যাকাউন্ট থেকে ৩১ লক্ষ ১৯ হাজার ৮৯৭ ডলার উধাও করে দেয়। তার পর থেকে তার সন্ধান মেলেনি। কালীঘাট থানায় ওই সংস্থার পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়। 

[আরও পড়ুন: বৃদ্ধ মা-বাবার দায়িত্ব না নিলে ৩ মাস পর্যন্ত জেল, নতুন পদক্ষেপ কলকাতা পুলিশের ]

অন্যদিকে তদন্ত শুরু করে পুলিশ জানতে পারে যে, ওই ব্যক্তি বিদেশে পালিয়েছে। তার বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারি হয়। তারই ভিত্তিতে কালীঘাট থানার পুলিশ মুম্বই বিমানবন্দর থেকে একটি মেল পায়। পুলিশ জানতে পারে, বিদেশ থেকে এসে মুম্বই বিমানবন্দরে নামামাত্রই তাকে ধরা হয়। তাকে সাহার থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। কালীঘাট থানার পুলিশ মুম্বই পৌঁছয়। মঙ্গলবার আন্ধেরি আদালতে তোলার পর তাকে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়। বুধবার তাকে আলিপুর আদালতে তোলা হয়। ধৃত ওই ব্যক্তিকে ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন কলকাতা আদালতের বিচারক। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতকে আপাতত জেরা করা হচ্ছে। 

[আরও পড়ুন: দ্রুত ট্রেন বদলানোর চেষ্টাই কাল, পা ফসকে রেললাইনে পড়ে মৃত্যু যাত্রীর]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং