২২  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মদের আসরে অশান্তির জের নাকি অন্য কিছু? তেলেঙ্গাবাগানে যুবকের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারে চাঞ্চল্য

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 31, 2022 10:30 am|    Updated: January 31, 2022 10:59 am

A youth's body recovered from Telenga Bagan । Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: মদ্যপ অবস্থায় মারামারির জের নাকি অন্য কিছু? তেলেঙ্গাবাগানে (Telenga Bagan) মদের আসরে অংশ নেওয়া এক যুবকের মৃত্যুর কারণ ঘিরে ধোঁয়াশা। এই ঘটনার পর থেকেই থমথমে তেলেঙ্গাবাগানের দত্তবাগান। উল্টোডাঙা থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, নিহত লোকনাথ দত্ত তেলেঙ্গাবাগানের দত্তবাগানের বাসিন্দা। রবিবার রাতে রবিবার রাতে বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন লোকনাথ। ফেরার পর এলাকাতেই বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে বসে মদ্যপান করছিলেন তিনি। স্থানীয়দের দাবি, অন্যান্য দিনের মতো ওই রাতেও মদের আসরে বচসায় জড়িয়ে পড়েন লোকনাথ। প্রায় প্রতি রাতেই গণ্ডগোল হয় বলে বিষয়টিতে প্রথমে কেউ গুরুত্ব দেননি। তবে পরে মদের আসর যে এলাকায় বসেছিল সেখানেই একটি ভ্যানের উপর থেকে লোকনাথের রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। 

[আরও পড়ুন: কালো তালিকাভুক্ত হয়েও ৪ বছর ধরে চলছে ধর্মতলার দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাস! তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য]

খবর দেওয়া হয় উল্টোডাঙা থানায়। পুলিশ তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। পুলিশ সূত্রে খবর, দেহ উদ্ধারের সময় লোকনাথের গলায় আঘাতের প্রমাণ মিলেছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, ধারালো অস্ত্রের কোপেই তাঁর প্রাণহানি। মদের আসরে বচসার জেরে তাঁকে খুন করা হয়েছে বলেই অভিযোগ নিহতের পরিবারের। মদের আসরে আর কে কে ছিল, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত গোপাল ভাদুড়ি নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, তার  সঙ্গেই মদের আসরে বচসায় জড়িয়েছিলেন লোকনাথ। সে কারণে তাঁর বিরুদ্ধে উঠেছে খুনের অভিযোগ। 

এখনও থমথমে গোটা এলাকা। স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ  এই ঘটনায় রীতিমতো ক্ষুব্ধ। তাঁদের দাবি, রোজ রাতেই মদের আসরে অশ্রাব্য ভাষায় চিৎকার, চেঁচামেচি লেগেই থাকে। তার ফলে এলাকার পরিবেশ নষ্ট করছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ওই মদের আসর বসা বন্ধ করার দাবিকে সরব স্থানীয়রা।

[আরও পড়ুন: করোনার কবল থেকে সুস্থতার পথে রাজ্য, একদিনে সংক্রমিত সাড়ে ৩ হাজারের কম]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে