BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘শুধু মুখের কথায় কাজ হয় না, কিছু করে দেখান’, দলের ‘বিদ্রোহী’ নেতাদের তোপ অধীরের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 18, 2020 11:08 am|    Updated: November 18, 2020 11:09 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিহার নির্বাচন ও অন্যান্য রাজ্যে উপনির্বাচনে খারাপ ফলের পর সোমবারই বিস্ফোরক মেজাজে দেখা গিয়েছিল প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান আইনজীবী নেতা কপিল সিব্বলকে (Kapil Sibal)। হারই কংগ্রেসের অভ্যেস হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে কটাক্ষ করেছিলেন তিনি। একইসঙ্গে ফের একবার দলের খোলনলচে বদলেরও দাবি জানান। এবার তাঁকে পালটা আক্রমণ করলেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী (Adhir Ranjan Chowdhury)। সরাসরি জানালেন, কোনও পদক্ষেপ না করে আত্মবিশ্লেষণের কথা বলার কোনও অর্থ হয় না।

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সঙ্গে এবিষয়ে কথা বলতে গিয়ে অধীর জানান, ‘‘এর আগেও এই নিয়ে কথা বলেছেন কপিল সিব্বল। তাঁকে দেখে মনে হয়েছে তিনি কংগ্রেসকে নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন। আত্মবিশ্লেষণ চাইছেন। কিন্তু আমরা ওঁর মুখটাই দেখতে পাইনি বিহার, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ কিংবা গুজরাটের ভোটে।’’ স্বভাবসুলভ আক্রমণাত্মক মেজাজেই এদিন ছিলেন অধীর। কপিলের উদ্দেশে সোজাসুজি তোপ দেগে তিনি আরও বলেন, ‘‘যদি কপিল বিহার ও মধ্যপ্রদেশে যেতেন, তাহলে প্রমাণ হয়ে যেত উনি যা বলছেন তা ঠিক। কিন্তু কেবল মুখের কথায় কিছুই হয় না। কাজের কাজ কিছু না করে এই আত্মবিশ্লেষণের কোনও মানে নেই।’’

[আরও পড়ুন : ছিঃ! উত্তরপ্রদেশের সরকারি ইঞ্জিনিয়ারের যৌন লালসার শিকার ৫০ নাবালিকা]

কেবল কপিল নন। আরও কয়েকজন কংগ্রেস নেতা বিহার ভোটের ব্যর্থতার পরে দলের নেতৃত্বের খোলনলচে বদলানোর পক্ষে সওয়াল করেছেন। মঙ্গলবার এই সব নেতাদের আক্রমণ করেন আরেক কংগ্রেস নেতা সলমন খুরশিদও (Salman Khurshid)। গান্ধী পরিবারের ঘনিষ্ঠ এই বর্ষীয়ান নেতার মতে, যাঁরা এই ধরনের কথা বলছেন তাঁরা অতিরিক্ত উদ্বেগে ভুগছেন। ফেসবুকে এক দীর্ঘ পোস্টে তিনি তাঁর মত ব্যক্ত করেন। তিনি জানান, ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তন‌ ঘটাতে হলে কোনও শর্টকাট অবলম্বন করা যাবে না। দলকে দীর্ঘ লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হওয়ার ডাক দিয়েছেন তিনি। সব মিলিয়ে নির্বাচনে ধারাবাহিক ব্যর্থতার পরে কংগ্রেসের অন্তর্দ্বন্দ্ব এই মুহূর্তে প্রকাশ্যে।

[আরও পড়ুন : পাশবিক! এবার ৬ বছরের শিশুকন্যাকে গণধর্ষণের পর ফুসফুস উপড়ে নেওয়া হল উত্তরপ্রদেশে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement