BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

৭ মাস পর খুলল আলিপুর-সহ রাজ্যের সব চিড়িয়াখানা, জেনে নিন প্রবেশের নিয়ম

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 2, 2020 11:35 am|    Updated: October 2, 2020 11:35 am

An Images

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: দীর্ঘ প্রায় সাত মাস পর আজ, শুক্রবার খুলল রাজ্যের সমস্ত চিড়িয়াখানা (Zoo)।  দর্শকদের কী কী বিধি মেনে চলতে হবে, কী করা যাবে না, তার বিস্তারিত গাইডলাইন ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়েছে বিভিন্ন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। জানা গিয়েছে, দর্শকরা সমস্ত বিধি মানছেন কি না সেদিকে নজরদারি চলবেই। কিন্তু আজ পরীক্ষা হবে চিড়িয়াখানার আবাসিকদেরও!

চিড়িয়াখানার আবসিক তথা প্রাণীদের অলস সময় কেটেছে শেষ ৭ মাস। এতদিন পর ফের এত মানুষ একসঙ্গে দেখবে তারা। দীর্ঘদিন কোনও হই–হট্টগোল, চিৎকার–চেঁচামেচি কানে আসেনি। কারও দুষ্টুমি সহ্য করতে হয়নি। স্রেফ শান্ত জঙ্গলের পরিবেশে বাঁধাধরা জীবনযাপন। যারা দেখভাল করে, নাইয়ে–খাইয়ে দেয় শুধু তারা ছাড়া কেউই আসেনি। এতেই তাদের অনেকের বেশ স্বভাব বদলে গিয়েছে। ঠিক এই কারণেই আজ প্রথমদিন অন্তত চিড়িয়াখানার সমস্ত সিসিটিভি–তে পশুপাখিদের আচরণ নজরে রাখবে কর্তৃপক্ষ। আলিপুর চিড়িয়াখানার (Alipore Zoological Garden) অধিকর্তা আশিষ সামন্ত আগেই বলেছিলেন, সে চিড়িয়াখানায় স্নেহাশিস নামে যে রয়্যাল বেঙ্গলটি রয়েছে, অনেকদিন বেশি মানুষ না দেখার অভ্যাসে একদিন তাঁর উপরই মেজাজ দেখিয়ে ফেলেছিল। শুধু সেই নয়, এমন অনেক হিংস্র প্রাণীদের এনক্লোজারেই আজ বিশেষ নজরদারি চলবে।এক অধিকর্তার কথায়, “প্রথম দিনটা সিসিটিভির নজরে রাখা হবে সবাইকে। দর্শকদের ক্ষেত্রে যেমন কিছু বিধিনিষেধ থাকছে। তেমনই পশুপাখিরা এতদিন পর কে কীভাবে নতুন পরিস্থিতির মধ্যে আচরণ করে, তা দেখে পর্যালোচনা করা হবে। প্রয়োজনে আলাদা ব্যবস্থা হবে।”

Zoo

[আরও পড়ুন: টাকা মঞ্জুর সত্ত্বেও রাজনৈতিক কারণে সালানপুরে আটকে প্রকল্পের কাজ, বিডিও’কে তোপ বাবুলের]

দর্শকদের জন্যও বিশেষ কিছু বিধি থাকছে। প্রথমত, এনক্লোজারের বাইরে গোল দাগ কেটে দেওয়া হয়েছে। নির্দিষ্ট দূরত্ব রেখে তার মধ্যেই দাঁড়াতে হবে দর্শকদের। থুতু বা পানের পিক ফেলা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। থাকবে স্যানিটাইজার টানেল। তার ভিতর দিয়েই ঢুকতে হবে। চিড়িয়াখানায় ঢোকার মুখেই শরীরের তাপমাত্রা মাপা হবে। অনলাইনে টিকিট কাটার ব্যবস্থা রয়েছেই। চিড়িয়াখানার ভিতরে জল খাওয়ার ব্যবস্থা আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। পানীয় জল বাড়ি থেকে আনতে হবে। খাবার নিয়ে ঢোকা যাবে না। সব মিলিয়ে যে কোনওরকম স্পর্শ থেকে দূরে থাকতে বলা হয়েছে। টানা তিন ঘণ্টার বেশি আপাতত দর্শকদের চিড়িয়াখানায় থাকতে দেওয়া যাবে না। তবে ফেসবুক লাইভ যেমন চলছিল তেমনই চলবে।

[আরও পড়ুন: নতুন অভিজ্ঞতা! ‘ওপেন বুক সিস্টেমে’ প্রথমদিন নির্বিঘ্নেই পরীক্ষা দিলেন রাজ্যের কলেজ পড়ুয়ারা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement