BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দৌলতাবাদ থেকে শিক্ষা, চালকের হাতে মোবাইল ধরিয়ে দেবে সিসিটিভি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 30, 2018 3:38 am|    Updated: January 30, 2018 3:38 am

An Images

নব্যেন্দু হাজরা: চলন্ত বাসে মোবাইল ব্যবহার করলে চালককে পড়তে হবে শাস্তির মুখে। মুর্শিদাবাদে ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনার পর কড়া নিদান পরিবহণ দপ্তরের।

সরকারি বাসের সমস্ত চালককে সতর্ক করে প্রত্যেক ডিপোতে পাঠানো হয়েছে নির্দেশিকা। শুধু মোবাইল ব্যবহারেই বিধি-নিষেধ নয়। সোমবার ফের একগুচ্ছ নির্দেশিকাকে স্মরণ করিয়ে চালক এবং কর্মীদের বার্তাও দেওয়া হয়েছে দপ্তরের তরফে। সেখানে পরিষ্কার বলে দেওয়া হয়েছে, কুয়াশাচ্ছন্ন রাস্তায় ফগ লাইট ব্যবহার করতে হবে চালকদের। যত তাড়াই থাক, অতিরিক্ত কুয়াশা থাকলে দূরপাল্লার বাস রাস্তায় দাঁড় করিয়ে রাখতে হবে। কোনওভাবেই ঝুঁকি নিয়ে তা চালানো যাবে না। বাসের গতি যেন কোনওভাবেই সীমা লঙ্ঘন না করে। শুধু তাই নয়। পরিষ্কারভাবে এদিনের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, কোনও চালক নেশাগ্রস্ত হলে তাঁর হাতে বাস দেওয়া যাবে না। সে বিষয়ে ডিপোয় থাকা কর্মীরা নজর রাখবেন। বাস বের করার সময় তাঁর প্রতিটি যন্ত্রাংশ ঠিক রয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখে তবেই রাস্তায় নামানো হবে। যদি না হয়, সেক্ষেত্রে যার গাফিলতি ধরা পড়বে তাঁকে শাস্তির মুখে পড়তে হবে।

[‘চালককে কান থেকে ফোন সরাতে বলেছিলাম, একবার যদি কথাটা শুনত!’]

একইসঙ্গে প্রশিক্ষিত চালক হলেই যে তাঁকে বাস চালাতে দেওয়া হবে তেমনটা নয়। এবার দেখে নেওয়া হবে তাঁর দূরদৃষ্টি ঠিক রয়েছে কিনা! কারণ অনেক চালকেরই দূরের বস্তু দেখার ক্ষেত্রে চোখে সমস্যা রয়েছে। চশমা পরে কাজ চালান। কিন্তু দূরপাল্লার বাস চালানোর ক্ষেত্রে দূরের দৃষ্টি ঠিক রাখা খুব জরুরি। তাই চোখ একটু খারাপ হলে তাঁকে আর দূরপাল্লার বাস চালাতে দেওয়া যাবে না।

পরিবহণ দপ্তরের কর্তারা জানান, নতুন সমস্ত এসি, নন এসি বাসেই সিসিটিভি রয়েছে। সেই সিসিটিভিতে এবার নজর রাখা হবে চালকদের উপরও। বাস চালানোর সময় ফোনে কথা বললে এবার তাঁদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সোমবার বিকেলেই প্রত্যেক সরকারি বাস ডিপোতে এই নির্দেশিকার কথা স্মরণ করিয়ে একটি চিঠি পরিবহণ দপ্তরের তরফে পাঠানো হয়েছে। এক আধিকারিক বলেন, ‘আমাদের এখানে সবাই প্রশিক্ষিত চালক। কিন্তু তাঁদেরও তো ভুল হয়। তাই মুর্শিদাবাদের ঘটনার পর ফের একবার তাঁদের সাবধান করা হল, যাতে বাস চালানোর সময় কোনওভাবেই যেন মোবাইলে তাঁরা কথা না বলেন।’

[মৃতদের পরিবার পিছু ৫ লক্ষ টাকা আর্থিক অনুদানের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর]

কিন্তু এত গেল সরকারি বাসের কথা। বেসরকারি বাস বা দূরপাল্লার বাস তো প্রচুর সংখ্যায়। সেই চালকরা তো কোনও নিয়ম নীতিরই তোয়াক্কা করে না। এবিষয়ে বাস-মিনিবাস সমন্বয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাহুল চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘ড্রাইভারদের হাতে মোবাইল থাকাই উচিত নয়। অনেক পুরনো চালক রয়েছেন, যাঁরা তাঁদের মোবাইল কন্ডাক্টরের হাতে দিয়ে বাস চালান। ফোন এলে যাতে পরে তিনি দেখতে পান। কিন্তু নতুন কিছু চালক এই ভুল’টা করেন। ফোন হাতে বাস চালানো তো গুরুতর অপরাধ। এক্ষেত্রে পুলিশেরও দেখা উচিত যাতে কেউ তা না করেন। পাশাপাশি চালক এবং মালিকদের নিয়ে কর্মশালা করারও চেষ্টা চালানো হচ্ছে সচেতনতা বৃদ্ধিতে।’

[বাস দুর্ঘটনায় রণক্ষেত্র দৌলতাবাদ, পরিস্থিতি মোকাবিলায় শূন্যে গুলি পুলিশের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement