Advertisement
Advertisement

হাওড়ায় ইঞ্জিনিয়ারের রহস্যমৃত্যু, ঘর থেকে উদ্ধার অগ্নিদগ্ধ দেহ

চাঞ্চল্য শিবপুরে।

An engineer died in mysterious circumstances at Howrah
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:January 14, 2018 7:47 am
  • Updated:January 14, 2018 7:47 am

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্কহাওড়ার শিবপুরে এক ইঞ্জিনিয়ারের রহস্যমৃত্যু। রবিবার সকালে শোওয়ার ঘর থেকে অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার করল পুলিশ। ঘরের যাবতীয় আসবাবপত্রও পুড়ে গিয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, সম্ভবত দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে পঞ্চাশোর্ধ্ব ওই প্রৌঢ়র। কিন্তু, কীভাবে আগুন লাগল ঘরে? খতিয়ে দেখছে পুলিশ। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

[মৃত স্বামীর মৃতদেহ আগলে স্ত্রী, ফ্ল্যাটের দরজা ভাঙতেই হতবাক পুলিশ]

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত প্রৌঢ়র নাম শান্তনু মুখোপাধ্যায়। পেশায় সিভিল ইঞ্জিনিয়ার। শিবপুরের আনন্দ পালিত রোডে এক দোতলা বাড়িতে একাই থাকতেন তিনি। প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, পারিবারিক অশান্তির কারণে শান্তনুবাবুর স্ত্রী আলাদা থাকেন। স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ার পর থেকেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। ধূমপান ও মদ্যপানে আসক্তি ছিল। রোজ রাতেই নিজের ঘরে মদ্যপান করতেন শান্তনু। শনিবার রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর দোতলার ঘরে শুতে গিয়েছিলেন তিনি। রবিবার সকালে ঘর থেকে গলগল করে ধোঁয়া বেরোতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর দেওয়া হয় শিবপুর থানায়। দরজা ভেঙে ঘরে ঢোকে পুলিশ। দেখা যায়, ঘরের মাঝে শান্তনুর অগ্নিদগ্ধ দেহ পড়ে রয়েছে। পুড়ে গিয়েছে ঘরের যাবতীয় আসবাবপত্রও। ঘটনার তুমুল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

Advertisement

[গুগল ডুডলে আজ শ্রদ্ধা মহাশ্বেতা দেবীকে]

কিন্তু, কীভাবে মারা গেলেন ওই সিভিল ইঞ্জিনিয়ার? ঘরের আগুনই বা লাগল কী করে? প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, রাতে সিগারেটের জ্বলন্ত টুকরো থেকেই কোনওভাবে ঘরে আগুন লেগে গিয়েছিল। প্রবল ধোঁয়ার দমবন্ধ হয়ে মারা গিয়েছেন শান্তনু। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ।

[‘ভিলেন’ সেই ঘূর্ণাবর্ত, দক্ষিণবঙ্গে কমবে শীতের দাপট]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ