২২  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

হরিদেবপুরের পর রাজাবাজার, ফের কলকাতায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু কিশোরের

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 2, 2022 8:28 pm|    Updated: July 2, 2022 11:09 pm

Another teenager died after electrified in Kolkata | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ এবং নিরুফা খাতুন: হরিদেব কাণ্ডের রেশ কাটেনি এখনও। এরই মধ্যে ফের কলকাতার বুকে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল এক কিশোরের। জানা গিয়েছে মৃত কিশোরের নাম মহম্মদ ফাইজান ওরফে ইমরান (১৩)। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে পুরসভার ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে নারকেলডাঙা থানা রাজাবাজারের (Rajabazar) সাহেববাগান এলাকায়। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত করতে বিশেষ তদন্তকারী কমিটি তৈরি হচ্ছে। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, সন্ধে সাড়ে ছ’টা নাগাদ সঙ্গে শিক্ষিকার কাছ থেকে পড়ে ফেরার পথে দাদার সঙ্গে খেলছিল কিশোর। সেই সময় পুরসভার বাতিস্তম্ভে হাত লাগতেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। প্রায় ১৫ মিনিট পর তাকে উদ্ধার করে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুরসভার আলোক দপ্তরের আধিকারিক, পুলিশ ও সিইএসসি। রাতে ঘটনাস্থলে যান তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ। তাঁর সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় কাউন্সিলর অয়ন চক্রবর্তী ও নারকেলডাঙা থানার ওসি। ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর কুণালবাবু বলেন,”মৃত্যু খুবই দুর্ভাগ্যজনক। এটা নিছকই দুর্ঘটনা। এই এলাকায় বর্ষার জমা জলের কোনও গল্প নেই। বিদ্যুতের তারও কোথাও খোলা পড়েছিল না। ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় পানীয় জল ও বিদ্যুৎ দু’টোই মানুষের প্রয়োজন। ল্যাম্পপোস্টের কাছে একটি পানীয় জলের কল রয়েছে। বৃষ্টির মধ্যে এখান থেকে কোনও দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তবে পুরসভা ও CESC দুর্ঘটনার কারণ তদন্ত করে দেখছে।” অয়নবাবু জানান, এই চত্ত্বরে প্রতিনিয়ত বিদ্যুৎ খুঁটি ও তারের উপর নজরদারি থাকে। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অয়নবাবু সঙ্গে সঙ্গে সিইএসসি ও আলোক বিভাগের কর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

[আরও পড়ুন: চলতি মাসেই শুরু অনলাইনে কলেজে ভরতির প্রক্রিয়া, দিনক্ষণ জানিয়ে দিল উচ্চ শিক্ষা দপ্তর]

গত রবিবার ১১৫ নম্বর ওয়ার্ডে হরিদেবপুরে জমা জল দিয়ে যাওয়ার সময় বাতিস্তম্ভে হাত লেগে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছিল নীতিশ যাদব নামে এক বালকের। এদিনও সন্ধের মুখে শহরে ভারী বৃষ্টি হয়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান স্থানীয় কাউন্সিলর অয়ন চক্রবর্তী। তিনি জানান, এই চত্বর প্রতিনিয়িত বিদ্যুতের খুঁটি ও তারের উপর নজরদারি থাকে। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Rajabazar
রাজাবাজারে জড়িয়ে থাকা বিদ্যুতের তার। ছবি: পিন্টু প্রধান।

 

মেয়র পারিষদ(আলোক) সন্দীপরঞ্জন বক্সি বলেন, “বাতিস্তম্ভে একাধিক হুকিং ছিল বলে জানা গিয়েছে। ওই বাতিস্তম্ভের নিচে CESC’র  বিদ্যুৎ চুরি করে টুলুপাম্প চালানো হচ্ছিল বলে জানা গিয়েছে। সম্ভবত সেখান থেকে বিদ্যুৎবাহী হয়ে উঠেছিল খুঁটিটি।”  দুর্ঘটনার কারণ জানতে একটি নিরপেক্ষ কমিটিকে দিয়ে তদন্ত শুরু করছে পুরসভা। রবিবার এই কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থলে যাবেন। স্থানীয়দের সঙ্গে কথাও বলবেন।

[আরও পড়ুন: রথের মেলা থেকে ফেরার সময় রাস্তা ভুলে যাওয়াই কাল, আউশগ্রামে গণধর্ষণের শিকার বধূ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে