১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

আইনি সহায়তার আশ্বাসে সুর নরম, টালিগঞ্জ-গড়িয়া রুটে ফের চালু অটো

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 9, 2018 5:51 pm|    Updated: February 9, 2018 5:51 pm

Auto service in Tollygung-Garia route back to normalcy after 30 hours

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  ৩০ ঘণ্টার ভোগান্তির অবসান। টালিগঞ্জ-গড়িয়া রুটে ফের চালু হল অটো-পরিষেবা। শ্লীলতাহানির মামলায় আইনি সহায়তার আশ্বাসে আন্দোলন প্রত্যাহার করে নিলেন অটো চালকরা। স্বস্তিতে নিত্যযাত্রীরা।  শ্লীলতাহানিতে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারির প্রতিবাদে অটো বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। অটো ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে এই নিয়ে কথা বলবেন তিনি।

[ফের অটোচালকের দাদাগিরি শহরে, চলন্ত অটোয় ছেলের সামনে মহিলার শ্লীলতাহানি]

ঘটনা সূত্রপাত বুধবার। সন্ধ্যায় সাড়ে সাতটা নাগাদ গড়িয়া-টালিগঞ্জ রুটে অটোয় বাঁশদ্রোণীর উষা থেকে গড়িয়া যাচ্ছিলেন বছর পঁয়তিরিশের এক মহিলা। সামনের সিটে চালকের পাশে বসেছিলেন তিনি। পিছনের সিটে ছিলেন ছেলে। ওই মহিলার অভিযোগ, চলন্ত অটোয় তাঁর শ্লীলতাহানি করেছেন অটোচালক ইমান আলি। ঘটনার পর তিনি যখন নেতাজিনগর থানায় অভিযোগ জানাতে যাচ্ছিলেন, তখন অটোরিক্সা থামিয়ে ওই মহিলা ও তাঁর ছেলের দিকে তেড়ে এসে হুমকি দেন ওই রুটের অন্য অটোচালকরা। থানার বাইরেও কটূক্তি করা হয়। রাতেই অভিযুক্ত অটোচালক ইমান আলিকে গ্রেপ্তার করে নেতাজিনগর থানার পুলিশ। প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে একযোগে টালিগঞ্জ-গড়িয়া অটো পরিষেবা রেখেছিলেন চালকরা। অভিযুক্তকে মুক্তি না দেওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। গড়িয়া থেকে টালিগঞ্জ পর্যন্ত প্রায় ৮০০টি অটো চলে। টালিগঞ্জ মেট্রো পর্যন্ত যাতায়াতের জন্য অটোর উপর নির্ভরশীল স্থানীয় বাসন্দারা। কাজের দিনে অটো বন্ধ থাকায় চূড়ান্ত ভোগান্তিতে পড়েন নিত্যযাত্রীরা। বাসগুলিতে উপচে পড়ছিল ভিড়। শেষপর্যন্ত, ৩০ ঘণ্টা পর নিজেদের অবস্থান থেকে সরলেন টালিগঞ্জ-গড়িয়া রুটের অটোচালকরা। ফের চালু হল পরিষেবা। অভিযুক্ত অটোচালক অবশ্য মুক্তি পাননি। তবে তাঁকে সবরকম আইনি সহায়তায় আশ্বাস দিয়েছে দক্ষিণ কলকাতা আইনজীবী সেল। তার জেরেই আন্দোলন প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত। যার ফলে স্বস্তি ফিরল নিত্যযাত্রীদের।

[জি ডি বিড়লার পর এবার কারমেল স্কুল, ‘যৌন নিগ্রহ’ দুধের শিশুর]

এদিকে, এই ঘটনার প্রেক্ষিতে এভাবে আচমকা অটো বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তে সমালোচনা করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। অটো ইউনিয়নের নেতাদের মুখের ভাষা নিয়েও আপত্তি তুলেছেন তিনি। ঘটনার পর অভিযোগকারিণী সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করেছিলেন অটো ইউনিয়নের নেতারা। শুক্রবার পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘এভাবে অটো বন্ধ রাখা বরদাস্ত করা হবে না। আমি অটো ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে কথা বলব।’

[অভিভাবক-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ, পড়ুয়ার যৌন নিগ্রহকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র কারমেল চত্বর

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে