BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘টেক্কা দেওয়ার রাজনীতি’, কেন্দ্রীয় নির্দেশের আগেই রাজ্যে সিনেমা হল খোলায় মমতাকে তোপ বাবুলের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 3, 2020 12:28 pm|    Updated: October 3, 2020 12:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্র বনাম রাজ্য। আনলক-৫’এ সিনেমা হল খোলার সিদ্ধান্তকেও সেই লড়াইয়ের মাঠে নামালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। অক্টোবরের পয়লা তারিখ থেকে এ রাজ্যে সিনেমা হল (Cinema Halls) খুলে দিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশিকা নিয়ে তাঁকে কটাক্ষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় লম্বা একটি পোস্ট লিখলেন তিনি। কেন্দ্রীয় নির্দেশ অনুসারে, ১৫ অক্টোবর থেকে সিনেমা হল খুলবে দেশের সর্বত্র। কিন্তু কেন্দ্রের এই নির্দেশিকা জারির আগেই কেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী নিজের সিদ্ধান্ত জানালেন? এই প্রশ্ন তুলে বাবুল সুপ্রিয়র মন্তব্য, ”এটা টেক্কা দেওয়ার রাজনীতি।”

সেপ্টেম্বরের শেষদিকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) টুইটারে ঘোষণা করে দেন যে অক্টোবরের ১ তারিখ থেকে সিনেমা হল-সহ সমস্ত বিনোদনমূলক মঞ্চ খুলে যাচ্ছে রাজ্যে। ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়ে চালু হবে সিনেমা হল, নাটক, থিয়েটার। এই খবরে সকলেই উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠেন। সেসময় প্রশ্নও উঠেছিল, কেন্দ্রীয় নির্দেশিকার আগেই কীভাবে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের জন্য এই সিদ্ধান্ত নিলেন? আনলক – ৪’এর শেষ দিন কেন্দ্রের নির্দেশিকায় দেখা গেল, আনলক- ৫ পর্যায় ১ অক্টোবর থেকে শুরু হলেও, সিনেমা হল খোলার কথা রয়েছে ১৫ তারিখ থেকে। অর্থাৎ রাজ্যের সঙ্গে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের ফারাক স্পষ্ট। এরপরই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বাবুল সুপ্রিয় এ নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি তোপ দেগেছেন ফেসবুক পোস্টে।

[আরও পড়ুন: পিঠ থেকে মাংস নিয়ে বানানো হল স্তন, মৃত্যু রুখে নারীত্ব বাঁচালেন মেডিক্যালের সার্জেনরা]

শুক্রবার ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন যে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির একজন সদস্য হওয়ায় সিনেমা হল খোলা কিংবা সবটা চালু হয়ে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা তিনি বোঝেন। কিন্তু তারপরও সন্দিহান যে এতে সংক্রমণ আরও বাড়বে কি না। এরপরই তিনি মমতার বিরুদ্ধে তোপ দেগে লেখেন, ”সব কিছুতেই টেক্কা দিতে চান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। এই নির্দেশও সেই টেক্কা দেওয়ার রাজনীতি। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইটাকেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজনীতির বাইরে রাখতে পারছেন না।”

[আরও পড়ুন: করোনা আবহে ছ’মাস বকেয়া মেটায়নি স্বাস্থ্যদপ্তর! নাজেহাল রাজ্যের ওষুধ সরবরাহকারীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement