১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগাম জামিনের জন্য বারাসত আদালতের দ্বারস্থ হলেও সুবিধা করতে পারলেন না রাজীব কুমার। বরং বিপদ আরও বাড়ল তাঁর। মঙ্গলবার শুনানির কথা থাকলেও, এদিন নির্ধারিত সময়ে রাজীব কুমারের আইনজীবী এবং সিবিআই আইনজীবীরা সেখানে উপস্থিত হলেও, আবেদন ফিরিয়ে দিলেন বিশেষ আদালতের বিচারক। তিনি জানান, এই মামলা শোনার এক্তিয়ার নেই বারাসতের বিশেষ আদালতের। সূত্রের খবর, এই ধাক্কা খেয়ে রাজীব কুমারের আইনজীবীরা এবার অন্য আইনি পথ খুঁজেছেন। নতুন করে জেলা জজ কোর্টের একই আবেদন নিয়ে গিয়েছেন তাঁরা। আজই সেই মামলার শুনানি বলে খবর।

[আরও পড়ুন: ব্যাংক জালিয়াতির নয়া কৌশল, অ্যাপ ‘এনি ডেস্ক’ ডাউনলোডেই কাজ হাসিল]

সারদা মামলার অন্যতম সাক্ষী হিসেবে সিবিআই এখন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার হন্যে হয়ে খুঁজছে। ছুটি নিয়ে রাজীব কুমার আসলে কোথায়, সেই উত্তরই পেতে চান তদন্তকারীরা। সূত্রের খবর, প্রয়োজনে তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করার জন্য হাই কোর্টের দ্বারস্থ হতে পারে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সারদা মামলার তদন্তে সহযোগিতার জন্য তাঁকে ফের নোটিস পাঠানো হতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার এই পদক্ষেপে রাজীব কুমারের আইনি লড়াই আরও কঠিন হল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহলের একাংশ।
তবে এখনও অধরা কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল। এমনকী রাজ্যের গোয়েন্দা বিভাগের দায়িত্বে থাকা দুঁদে পুলিশ অফিসারের খবর নাকি জানেন না রাজ্য পুলিশের খোদ ডিজি বীরেন্দ্র। সিবিআইকে লেখা চিঠিতে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। সোমবার বিকেলে বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের মাধ্যমে রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র সিবিআইকে একটি চিঠি লিখেছেন। তাতে বলা হয়েছে, এই মুহূর্তে রাজীব কুমার কোথায় আছেন, সেটা নবান্নও জানে না। বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশের মতে, আসলে দুঁদে আইপিএস অফিসার অত্যন্ত সুকৌশলী চাল চেলে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার উপরমহলের আধিকারিকদেরই ধোঁয়াশায় রাখার চেষ্টা করছেন।

[আরও পড়ুন: রাজীব কুমারের খবর নেই রাজ্য প্রশাসনের কাছেও, সিবিআইকে জানালেন ডিজি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং