৫ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ২১ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘‘ইভিএম নয়, পুরভোট করতে হবে ব্যালটে।’’ সাফ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া দ্রুত শুরু করার জন্য পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। লোকসভা ভোটে ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ তুলে আগে একাধিকবার সরব হতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমোকে৷ সেই কারণেই পঞ্চায়েতের মতোই পুরোভোট ব্যালট পেপারে ব্যবহারে উদ্যোগী হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, এমনই মত রাজনৈতিক মহলের৷

[ আরও পড়ুন: পুলিশি পরিষেবায় গাফিলতির অভিযোগ, উষসী নিগ্রহ কাণ্ডে গঠিত তদন্ত কমিশন ]

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে ইভিএম কারচুপির অভিযোগে বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন তৃণমূল নেত্রী৷ আগামিদিনে যে অভিযোগকে হাতিয়ার করে আন্দোলন জোরদার করারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি৷ এমনকী, এই ব্যালট ফেরানোর দাবিতেই এবারের ২১ জুলাইয়ের কর্মসূচি রখেছে তৃণমূল। মঙ্গলবার কাউন্সিলরদের বৈঠকে যা নিয়ে আরও একবার সরব হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেখানেও তিনি ইঙ্গিত দেন, পঞ্চায়েতের মতো পুরভোট হবে ব্যালট পেপারে। এবং এই সিদ্ধান্তের সমর্থনে যুক্তিও পেশ করেছেন তৃণমূল নেত্রী৷ তিনি জানান, যেহেতু দেশজুড়ে ব্যালটে ভোট করানোর দাবিতে সরব হয়েছে তৃণমূল৷ আন্দোলনের পথে হাঁটছে দল৷ সেহেতু এই লড়াই বাংলা থেকেই শুরু হওয়া প্রয়োজন। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমরা দেশ জুড়ে ব্যালটে নির্বাচনের দাবিতে লড়াইয়ে নেমেছি। চ্যারিটি বিগিনস অ্যাট হোম। এবারের পুরভোটও আমরা ব্যালটেই করব।’’ বিজেপিকে আক্রমণ শানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী আরও একবার দাবি করেন, লোকসভা নির্বাচনে যে ইভিএমে কারচুপি হয়েছে, তা ভবিষ্যতে প্রমাণিত হবে।

[ আরও পড়ুন: ফোর্ট উইলিয়ামের অন্দরেই ধর্ষণের শিকার নাবালিকা, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত ]

যদিও মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতার রাস্তাতেই হেঁটেছে বাম-বিজেপি৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু বলেন, ‘‘ভয়ে পেয়ে চুরির রাস্তায় হাঁটছে তৃণমূল। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ছাপ্পা আর রিগিং করে জিতেছিল শাসকদল, পুরভোটেও সেভাবেই জিততে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী।’’ মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলেছে সিপিএম। দলের পরিষদীয় নেতা তথা যাদবপুরের বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী জানতে চান, ‘‘২০১১, ২০১৪-তে ইভিএম নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কোনও সমস্যা হল না যখন, এখন কীসের সমস্যা?’’ উল্লেখ্য, আগামী বছর কলকাতা-সহ রাজ্যের প্রায় একশোটি পুরসভায় হতে চলেছে পুর নির্বাচন। ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে যেখানে তৃণমূলকে ধাক্কা দিতে প্রাণপণ লড়াই করছে বিজেপি। বিজেপির সেই চেষ্টাকে আটকাতেই এটা তৃণমূল নেত্রীর পালটা কৌশল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং