Advertisement
Advertisement
BBC Documentary

BBC Documentary: JNU’র পর প্রেসিডেন্সিতে মোদির তথ্যচিত্র চলাকালীন বিদ্যুৎ বিভ্রাট, বিক্ষোভে পড়ুয়ারা

এর আগে JNU-তে ছবিটি দেখানোর সময় একই সমস্যা হয়।

BBC Documentary: Power cut during Narendra Modi's BBC documentary at Presidency University, students started protest | Sangbad Pratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:January 27, 2023 7:15 pm
  • Updated:January 27, 2023 7:27 pm

দীপালি সেন: নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে বিবিসি’র (BBC) বিতর্কিত তথ্যচিত্র প্রদর্শনীতে ইতিমধ্যেই নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। তা সত্ত্বেও বিভিন্ন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে ছবিটি দেখানো হয়েছে। শুক্রবার প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় (Presidency University) কর্তৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ‘ইন্ডিয়া: দ্য মোদি কোয়েশ্চেন’-এর প্রদর্শনী চলাকালীন বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটে। আধঘণ্টার জন্য বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বলে অভিযোগ। এর জন্য কর্তৃপক্ষকে দায়ী করছেন প্রেসিডেন্সির ছাত্র সংগঠন। যদিও শেষমেশ বিদ্যুৎ আসে এবং ছবিটি দেখানো হয়।

বিবিসি’র তথ্যচিত্রটি নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। খোদ ব্রিটেনই বিষয়টিকে ভালভাবে মেনে নিচ্ছে না। কিন্তু এ দেশে সেই ডকু ফিচারকে হাতিয়ার করতে চায় বিরোধীরা। বিশেষত অ-বিজেপি ছাত্র সংগঠনগুলি এই ছবি দেখাতে মরিয়া। হায়দরাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে চলতি সপ্তাহেই ‘ইন্ডিয়া: দ্য মোদি কোয়েশ্চেন’-এর (India: The Modi Question) প্রদর্শনী হয়েছে। জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে ছবির প্রদর্শনীতে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ছাত্র সংগঠন JNUSU নিজেদের আয়োজনে ছবিটি দেখানোর আয়োজন করে বিপাকেও পড়ে। ছবিটি চালকালীন অন্ধকারে ডুবে যায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। তা নিয়ে গন্ডগোল হয় বিস্তর।

Advertisement

[আরও পড়ুন: যোশিমঠের পরে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে গোটা উত্তরাখণ্ড, ধসের মুখে বদ্রীনাথ-মুসৌরিও]

এরপর কলকাতার দুই নামী উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান যাদবপুর (JU) ও প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় ‘ইন্ডিয়া: দ্য মোদি কোয়েশ্চেন’ দেখানোর আয়োজন করে। বৃহস্পতিবার নির্বিঘ্নে যাদবপুরে প্রদর্শনী হয়েছে। সেখানে খোলা জায়গায় প্রজেক্টরের মাধ্যমে দেখানো হয় বিতর্কিত ডকু ফিচার। তবে শুক্রবার তা দেখানোর সময় বাধা পড়ল প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে। যদিও প্রথম থেকেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সাফ জানিয়েছিল, এই ছবি প্রদর্শনে সায় নেই। কোনও অশান্তি হলে তার দায় পড়ুয়াদেরই নিতে হবে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: বইপ্রেমীদের জন্য সুখবর! বইমেলা উপলক্ষে মিলবে বাড়তি মেট্রো]

তা সত্ত্বেও শুক্রবার প্রেসিডেন্সির ইউনিয়ন রুমে (Union Room) মোদির বিতর্কিত তথ্যচিত্রটি দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়। বিকেল চারটে থেকে তা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তা ৫টা নাগাদ শুরু হয়। পড়ুয়াদের অভিযোগ, আধঘণ্টা পর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। কর্তৃপক্ষকে এর জন্য দায়ী করে বিক্ষোভে শামিল হন পড়ুয়ারা। বিদ্যুৎ ফেরাতে উদ্যোগী হয়ে ওঠেন। শেষমেশ অবশ্য ৬টা নাগাদ বিদ্যুৎ সংযোগ ফেরে। দর্শকরা দেখেন ‘ইন্ডিয়া: দ্য মোদি কোয়েশ্চেন’। 

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ