BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দলের কর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ইস্তফা দক্ষিণ কলকাতার বিজেপি সভাপতির

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: July 4, 2020 4:09 pm|    Updated: July 4, 2020 4:49 pm

An Images

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস ও ধর্ষণের অভিযোগে অবশেষে ইস্তফা দিলেন দক্ষিণ কলকাতার বিজেপি সভাপতি সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় (Somnath Banerjee)। দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) কাছে পদত্যাগ পত্র পাঠালেন দক্ষিণ কলকাতা বিজেপির জেলা সভাপতি। সোমনাথের বিরুদ্ধে হরিদেবপুর থানায় দলের এক প্রাক্তন মহিলা কর্মী সহবাস ও ধর্ষণের অভিযোগ করেছিল। সোমনাথবাবু দিলীপ ঘোষকে পাঠানো পদত্যাগ পত্রে লিখেছেন, ‘আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। কিন্তু যেহেতু পার্টিতে আমি রয়েছি, তাই এখন পদত্যাগ করছি। যাতে পার্টির বদনাম না হয়।’

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার। ওইদিন সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে হরিদেবপুর থানায় বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস ও ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন বিজেপির টিচার সেলের সদস্য এক তরুণী। ওই তরুণীর অভিযোগ ছিল যে, তাঁর স্বামী মারা যাওয়ার পর সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই নিউ আলিপুরের জ্যোতিষ রায় রোডের বাসিন্দা সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্ক তৈরি করেন তাঁর সঙ্গে। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১৫ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত একাধিকবার তরুণীর সঙ্গে সহবাসও করেন ওই বিজেপি নেতা। ধর্ষণও করেন বলে অভিযোগ তরুণীর। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন সময় তরুণীর থেকে ৫০ হাজার টাকাও নেন অভিযুক্ত। যা ফেরত চাইতেই হুমকির মুখে পড়তে হয় অভিযোগকারিণীকে। পরবর্তীতে বিয়ের জন্য চাপ দিতেই পুরোপুরি বেঁকে বসে সোমনাথ। একাধিকবার আলোচনার মাধ্যমে মীমাংসার চেষ্টা করেও কোনও লাভ হয় না। এরপরই পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তরুণী।

[আরও পড়ুন: ‘সহবাসের অভিযোগ মিথ্যে’, দলের নেত্রীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলার সিদ্ধান্ত বিজেপি নেতার]

দলীয় সূত্রে খবর, গতকাল দিলীপ ঘোষের সঙ্গে দেখা করেন সোমনাথ। তখনই তাঁকে বলা হয়, নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করে ফের দায়িত্ব নিতে। তাঁকে এদিন জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে পুরোটাই চক্রান্ত। তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা হচ্ছে। জানিয়েছেন, ‘নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করে আবার পার্টির দায়িত্ব নেব।’ সোমনাথের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তবে আপাতত তাঁকে কাজ চালাতে বলেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি। প্রসঙ্গত, ওই তরুণী জানিয়েছেন, FIR করার পর বারবার ফোনে তাঁকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। রীতিমতো আতঙ্কিত তিনি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement