Advertisement
Advertisement
Bus strike

সরকারি আশ্বাসে সিদ্ধান্ত বদল বাস মালিকদের, ৩ দিনের বাস ধর্মঘট প্রত্যাহার

একইসঙ্গে ট্যাক্সি ধর্মঘটও স্থগিতের সিদ্ধান্ত সংগঠনগুলির।

Bengal Bus unions call off protest after meeting state representatives |SangbadPratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:January 27, 2021 7:50 pm
  • Updated:January 27, 2021 8:29 pm

নব্যেন্দু হাজরা: সরকারি হস্তক্ষেপেই নিজেদের অনড় সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটলেন রাজ্যের ৫ বাসমালিক সংগঠন। বৃহস্পতিবার থেকে টানা তিনদিনের ধর্মঘট (Bus strike) প্রত্যাহার করে নিলেন তাঁরা। বুধবার রাজ্যের মুখ্যসচিবের সঙ্গে প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে বৈঠকের পর বেরিয়ে নিজেদের নতুন সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করে বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেট-সহ ধর্মঘটী সংগঠনগুলি। আর তাতেই চাপা টেনশন থেকে স্বস্তি পেলেন কয়েক হাজার নিত্যযাত্রী। কারণ, টানা তিনদিন বেসরকারি বাসগুলি না চললে, দিনের ব্যস্ত সময়ে গন্তব্যে পৌঁছতে তাঁদের বেশ সমস্যার মধ্যে পড়তে হতো।

ডিজেলের দামে কর কমানো, জিএসটির স্কেল সংশোধন, ভাড়া বৃদ্ধির দাবি-সহ একাধিক ইস্যুতে ২৮ তারিখ থেকে টানা তিনদিন বাস ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল ৫টি সংগঠন। তাঁদের এই সিদ্ধান্তের জেরে নিত্যযাত্রীদের সমস্যার কথা ভেবে সমাধানে নামে রাজ্য সরকার। গত সোমবার এ নিয়ে বাস সংগঠনগুলিকে বৈঠকে ডাকেন রাজ্যের মুখ্যসচিব (Chief secretary) আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সেদিন কোনও রফাসূত্র বের হয়নি। বুধবার ফের বৈঠকের ডাক দেওয়া হয়। তাতেই মেলে সমাধান। আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের পর বেরিয়ে বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেটের সহ-সভাপতি সুরজিৎ সাহা জানান, ”সরকার আমাদের বেশ কয়েকটি দাবি মেনে নিয়েছে। ডিজেলের উপর থেকে কর কমানো নিয়ে কেন্দ্রের কাছে চিঠি পাঠানো হবে বলে আশ্বাস মিলেছে।মুখ্যসচিব জানিয়েছেন যে কেন্দ্র কর কমানোয় পদক্ষেপ নিলে রাজ্যও ডিজেল থেকে করের অঙ্ক কমিয়ে দেবে।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: শ্বশুরবাড়ির অত্যাচারে নাবালিকা মেয়েকে নিয়ে ট্রেনের সামনে মরণঝাঁপ মায়ের, গ্রেপ্তার স্বামী]

২৮ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে বাসের পাশাপাশি ট্যাক্সি ধর্মঘটেরও ডাক দিয়েছিল সংগঠনগুলি। তবে এদিন মুখ্যসচিবের সঙ্গে কথা বলার পর তাঁরাও তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। ধর্মঘট প্রত্যাহারের কথা জানিয়েছে বেঙ্গল ট্যাক্সি অ্যাসোসিয়েশন। তাঁদের তরফে বলা হয়েছে, সংগঠন ধর্মঘটের ডাক দিলেও চালকরা তা সমর্থন করেননি। তাঁরা ট্যাক্সি নিয়ে রাস্তায় নামতেই চাইছেন। তাই তাঁদের মতামতকে গুরুত্ব দিয়ে ট্যাক্সি ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এল সংগঠনগুলি। সবমিলিয়ে, দৈনন্দিন যাতায়াতের ক্ষেত্রে নিত্যযাত্রীরা যে সমস্যায় পড়ার আশঙ্কা করছিলেন, তা আপাতত অতীত। আগামী তিনদিন গণপরিবহণ স্বাভাবিকই থাকবে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: করোনা কালেও ধারাবাহিকভাবে পরিষেবা প্রদান, মমতা সরকারের প্রশংসায় বিশ্বব্যাংক]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ